এফএনএস: র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এর মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে অভিযান শুরুর দু’একদিন পরই ইসমাইল হোসেন চৌধুরী স¤্রাট ঢাকা ছেড়ে আত্মগোপনে ছিলেন।
আত্মগোপনে থাকতে তিনি বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করেছিলেন। গতকাল রোববার দুপুরে র‌্যাব সদর দফতরে সংবাদ সম্মলনে তিনি এ কথা বলেন। বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। এ দেশে সবাই সমান অধিকার ভোগ করবেন। আইন মেনে চলবেন। কেউ যদি আইন অমান্য করেন, বেআইনি কাজে লিপ্ত হন, তাকে শাস্তি পেতে হবে।’
স¤্রাটের বিরুদ্ধে কী কী অভিযোগ রয়েছে জানতে চাইলে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আমরা যেসব জায়গায় ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছি, সেসব জায়গা থেকে স¤্রাটের নাম বারবার এসেছে।
ক্যাসিনো পরিচালনার অভিযোগেই তাকে আটক করা হয়েছে। স¤্রাটের সঙ্গে আরমান নামে একজনকে আটক করা হয়েছে, সেও এই ক্যাসিনোর সঙ্গে যুক্ত।’
ক্যাসিনোর সঙ্গে আর কারা জড়িত জানতে চাওয়া হলে র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘আমরা অভিযান চালিয়ে ক্যাসিনো বন্ধ করেছি। ক্যাসিনোর সঙ্গে যারা সরাসরি জড়িত, তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। অভিযান চলমান রয়েছে।’ তিনি বলেন ‘এটা একটা বড় ধরনের কৌশল। এর সুফল জনগণ আগামীতেও উপভোগ করতে পারবে। তবে এই ধারা ধরে রাখতে হলে শুধু একটি ফোর্স নয়, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সব ফোর্সকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’