এফএনএস: ভোটারদের অনীহা ও নিরুত্তাপ ভোটে রংপুর-৩ (সদর) উপ-নির্বাচনে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পুত্র রাহগির আল মাহি এরশাদ (সাদ) বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন আয়োজিত ফলাফল কেন্দ্রে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সাহাতাব উদ্দীন এ ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, মোট ১৭৫টি কেন্দ্রে সাদ এরশাদ (লাঙ্গল) পেয়েছেন ৫৮ হাজার ৮৭৮ ভোট। আর বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছেন (ধানের শীষ) ১৬ হাজার ৯৪৭ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মকবুল শাহরিয়ার (মটরগাড়ি) ১৪ হাজার ৯৮৪ ভোট পেয়েছেন। ফলাফল অনুযায়ী সাদ এরশাদকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা। এর আগে গতকাল শনিবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল পাচঁটা পর্যন্ত নগরীর ১৭৫টি কেন্দ্রে এক যোগে ভোট হয়। এ আসনে মোট ভোটার চার লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ দুই লাখ ২০ হাজার ৮ শত ২৩ এবং নারী ভোটার দুই লাখ ২০ হাজার ৪১ জন।
জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। ভোটগ্রহণ শেষে ইসির অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান জানান ভোটার কম হলেও ভাল ভোট হয়েছে। তবে নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে নির্বাচন কমিশন কিংবা ইসি সচিব কথা বলেননি। মোখলেছুর রহমান বলেন, আজকের আবহাওয়া ভাল ছিল। কোথাও কোনো সমস্যাও হয়নি। ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম হলেও ভোট ভাল হয়েছে। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ভোটগ্রহণ শেষে এখন গণনা চলছিল জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে ফলাফল প্রকাশের নির্দেশনা দিয়েছি কেন্দ্রে কেন্দ্রে। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনতো ক্যালকুলেটরের মতো কাজ করে। তাই বেশি দেরি হবে না। আশা করি, ৮টার মধ্যে ফলাফল ঘোষণা করা হতে পারে। পরে আটটার আগেই ফলাফল পাওয়া যায়।
নির্বাচন ভাল হয়েছে দাবি করা হলেও বিএনপির প্রার্থী রিটা রহমান অভিযোগ তুলেছেন ভোটের আগের রাতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী প্রার্থী সমর্থকদের বাড়িতে হানা দিয়েছে। আবার, ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার অন্তত দুই ঘণ্টা আগে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাদ এরশাদ শতভাগ জয় পাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এ নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেছেন ছয়জন প্রার্থী। আওয়ামী লীগের প্রার্থী নির্বাচন থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় এ নির্বাচন উত্তাপ হারিয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। নির্বাচন কমিশনকেও ভোটের পুরোটা সময় ফুরফুরে মেজাজেই দেখা গেছে। মাছ শিকার করে সময় কাটিয়ে ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার আগে তারা নির্বাচন ভবন ছেড়েছেন। উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এরশাদপুত্র রাহগির আল মাহি এরশাদ (সাদ), বিএনপির রিটা রহমান, স্বতন্ত্র হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ, এনপিপির শফিউল আলম, গণফ্রন্টের কাজী মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ এবং খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল প্রতিদ্ব›িদ্বতায় ছিলেন।
এ আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১ লাখ ৪২ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছিলেন ৫৩ হাজার ৮৯ ভোট। ভোট পড়েছিল ৫২ দশমিক ৩১ শতাংশ। এইচএম এরশাদ গত ১৪ জুলাই চিকৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা যান। তার পরিপ্রেক্ষিতে সংসদ সচিবালয়ের সচিব (রুটিন দায়িত্ব) আ. ই. ম গোলাম কিবরিয়া মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রংপুর-৩ আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে ১ সেপ্টেম্বর উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন।