স্টাফ রিপোর্টার: গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে আবাদ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় রাজশাহীতে বেড়েছে সবজির দাম। প্রশাসনের নজরদারি থাকায় পেঁয়াজের দাম নি¤œমুখি। এছাড়া অন্যান্য নিত্যপণ্যের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
গতকাল শুক্রবার রাজশাহী মহানগরীসহ এর উপকন্ঠের বাজারগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাজারে প্রশাসনের নজরদারি থাকায় পেঁয়াজের দাম এখন নি¤œমুখি। গতকাল পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ এবং ভারতিয় ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে দেশি ৭০ থেকে ৭৫ এবং ভারতিয় ৬৫ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রে হয়েছে। পেঁয়াজের দর নিয়ন্ত্রণে সরকার ঢাকায় টিসিবির মাধ্যমে ৪৫ টাকা কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রি করলেও রাজশাহীসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে এখনও শুরু না করায় সাধারণ ক্রেতারা হতাশ।
এদিকে গত সপ্তাহে টানা বর্ষনে সবজির আবাদ কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সপ্তাহের ব্যবধানে সবজির দাম কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ ৮০ টাকায়, বেগুন ৪৫ থেকে ৫০, আলু ১৬ থেকে ১৮, পটল ২৫ থেকে ৩০, করোলা ৪০, কচু ৬০, পেঁপে ২০, ঢেঁড়স ৩০, মিস্টিকুমড়া ২৫, লাউ-কুমড়া প্রতিপিস ২৫, প্রতিহালি কলা ১৬, লেবু ৮ থেকে ১০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
এছাড়া গতকাল প্রতিকেজি ছোটমাছ ২শ’ থেকে ৫শ’, সিলভার কার্প ১শ’ থেকে ১১০, পাঙ্গাস ১১০ থেকে ১২০, রুই-কাতলা ১৫০ থেকে ২৫০, ইলিশ ছোট সাইজ (৪০০ থেকে ৬০০ গ্রাম) ৫শ’ থেকে ৭শ’ টাকা এবং বড় সাইজ (৮০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি) ৯শ’ থেকে ১ হাজার ২শ’ টাকায় বিক্রি হয়েছে। প্রতিকেজি গরুর মাংস ৫২০ থেকে ৫৫০, খাসির মাংস ৬৫০ থেকে ৭৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। গতকাল প্রতিকেজি মুরগি ব্রয়লার ১৩০, সোনালী ২২০, দেশি ৩২০ থেকে ৩৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। গতকাল প্রতিহালি সাদাডিম ৩২ থেকে ৩৪ এবং লালডিম ৩৪ থেকে ৩৬ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
এদিকে গতকাল খুচরা বাজারে প্রতিকেজি পোলাও এর চাল রকম ভেদে ৭০ থেকে ১শ’ টাকায় বিক্রি হয়েছে। গুটিস্বর্না ২৮/৩০, পারিজা/ লালস্বর্না ৩২/৩৩, আটাশ ৩৪ থেকে ৪২, মিনিকেট ৪৩ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। মুগ ডাল বড়দানা ৬০, ছোটদানা ১২০, মসুর ডাল বড়দানা ৫৫, ছোট দানা ১০৮, ছোলার ডাল ৯০, এংকর ডাল ৪০, খেসারি ডাল ৬০, আটা খোলা ২৮ এবং প্যাকেট ৩২/৩৩ টাকায় বিক্রি হয়েছে, প্রতিলিটার সয়াবিন তেল খোলা ৭৮, বোতল ৯৫ থেকে ১০৫ টাকা, চিনি খোলা ৫৮, প্যাকেট ৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
টিসিবির রাজশাহী আঞ্চলিক অফিস প্রধান প্রতাপ কুমার জানান, দুর্গাপূজা উপলক্ষে রাজশাহী মহানগরীর গুরুত্বপুর্ণ ৫টি পয়েন্টে ট্রাকে করে ৩টি পণ্য বিক্রি অব্যাহত রয়েছে। এরমধ্যে চিনি ও মসুর ডাল ৫০ টাকা কেজিতে এবং সয়াবিন তেল ৮৫ টাকা লিটার হিসেবে বিক্রি করা হচ্ছে। এই পণ্যগুলো আগামীকাল ৬ অক্টোবর পর্যন্ত বিক্রি করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।