সোনালী ডেস্ক: ভারত রপ্তানি বন্ধের পর পেঁয়াজের দাম নিয়ে অস্থিরতার মধ্যে মিশর ও চীন থেকে ১৩ কন্টেইনারভরতি এই নিত্যপণ্য নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়েছে দুটি জাহাজ।
এসব কন্টেইনার চট্টগ্রাম বন্দরে এসে পৌঁছানোর পর সোমবার পেঁয়াজ খালাস শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক।
এম ভি কালা পাগুরো এবং এমভি জাকার্তা ব্রিজ নামক জাহাজ দুটি করে এসব পেঁয়াজ আসে।
সাধারণত প্রতিটি ৪০ ফুট দৈর্ঘ্যের কন্টেইনারে গড়ে ৩০ টনের মতো পেঁয়াজ থাকতে পারে। অর্থাৎ দুই জাহাজে ৩৯০ টনের মতো পেঁয়াজ হতে পারে।
বন্দর কর্মকর্তারা জানান, মিশর এবং চীন থেকে বাংলাদেশের তিন আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এসব পেঁয়াজ আমদানি করেছে।
আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান তিনটি হল- জেনি এন্টারপ্রাইজ, হাফিজ করপোরেশন ও এন এস ইন্টারন্যাশনাল।
বন্দরের জেটিতে এসব কন্টেইনার নামানোর কাজ চলছে। পরে পণ্য আমদানিকারকরা ছাড় করাবেন।
পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতার পরিপ্রেক্ষিতে তুরস্ক, মিয়ানমার ও মিশর থেকে আমদানির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে বাণিজ্য সচিব ইতোপূর্বে জানিয়েছিলেন।