এফএনএস বিদেশ : পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত বেলুচিস্তান প্রদেশে এক বোমা বিস্ফোরণে অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৭ জন। গত শনিবার পুলিশের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস’া আনাদোলু এজেন্সি। সংবাদমাধ্যমটি জানায়, সেখানকার মূলধারার ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল জমিয়ত উলেমা-ই-ইসলামের স’ানীয় দফতরের সামনেই এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তবে এখনও কোনও গোষ্ঠী হামলার দায়ভার স্বীকার করেনি। স’ানীয় পুলিশ কর্মকর্তা জানান, নিহতদের মধ্যে দলটির সিনিয়র নেতা মাওলানা হানিফ রয়েছেন। আহতদের মধ্যে রয়েছে দুই শিশু। তিনি বলেন, মাওলানা হানিফকে আহত অবস’ায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। সেখানেই চিকিৎসারত অবস’ায় মারা যান তিনি। আহতদের সবাইকে স’ানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিলো বলে জানান কর্মকর্তারা। পরে গুর্বতর আহতদের কোয়েটায় নিয়ে যাওয়া হয়। প্রকৃতপক্ষে বেলুচিস্তানের অবস’া ভারত-শাসিত জম্মু-কাশ্মিরের মতোই। ১৯৪৭ সালের দেশভাগের সময় পাকিস্তানের সঙ্গে যুক্ত হয় এই প্রদেশটি। প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর এই অঞ্চলে একটি প্রাদেশিক সরকার রয়েছে। তবে জম্মু-কাশ্মিরে যেমন করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রবল উপসি’তি রয়েছে, বেলুচিস্তানেও তেমনি পাকিস্তানের সেনাবাহিনী কার্যত ভিনদেশি আগ্রাসী বাহিনীর মতো করে দমননীতি জারি রেখেছে। নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে প্রাদেশিক সরকারের তেমন কোনও অবস’ান নেই। ভারত-শাসিত কাশ্মিরিদের মতো করেই সেখানে বেলুচ বংশোদ্ভূত আদি জনগোষ্ঠীর মানুষেরা দীর্ঘদিন ধরেই স্বাধীনতার দাবি জানিয়ে আসছে। বেলুচদের স্বাধীনতার আন্দোলনকে বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকা- হিসেবে দেখে আসছে পাকিস্তান।