এফএনএস: খুলনায় সোনালী ব্যাংকের ১২৬ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় প্রতিষ্ঠানটির চার কর্মকর্তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তারা হলেন- জিএম নেপাল চন্দ্র সাহা (তৎকালীন খুলনা কর্পোরেট শাখার ডিজিএম), ব্যাংকের খুলনা কর্পোরেট শাখার সাবেক ডিজিএম সমীর কুমার দেবনাথ, এসপিও শেখ তৈয়াবুর রহমান ও সহকারী কর্মকর্তা কাজী হাবিবুর রহমান। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ আদালতে হাজির হয়ে তারা জামিনের আবেদন করেন।
কিন্তু বিচারক শহিদুল ইসলাম আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) জমা দেয়ার আগ পর্যন্ত উচ্চ আদালতের আদেশে জামিনে ছিলেন ওই চার কর্মকর্তা।
মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খন্দকার মজিবর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মামলার অপর আসামি সোনালী জুট মিলসের চেয়ারম্যান এস এম এমদাদুল হোসেন পলাতক।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, আসামিরা পরস্পরের যোগসাজশে সোনালী জুট মিলসের নামে তিন দফায় ব্যাংক থেকে মোট ৮৫ কোটি ৮০ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৪ টাকা ঋণ নিয়ে কোনো মালামাল না কিনে আত্মসাৎ করেন। এতে সরকারের সুদাসলে মোট ১২৬ কোটি ৮২ লাখ ৯৩ হাজার ২৮২ টাকার আর্থিক ক্ষতিসাধন হয়েছে। এ ঘটনায় ২০১৭ সালে খানজাহান আলী থানায় মামলা করে দুদক।