এফএনএস: সারাদেশে হাসপাতালে নতুন করে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা আরও কমে এসেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশের হাসপাতালগুলোতে ৩৮৮ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন। আগের দিন ৩৯৮ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে।
দুই মাস আগে ২০ জুলাই ৩৯২ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসার জন্য সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এরপর থেকে প্রতিদিনই ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। গত জুলাই মাসে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৬ হাজার ২৫৩ জন হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর আগস্ট মাসে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা সকল ৫২ হাজার ৬৩৬ জনে গিয়ে দাঁড়ায়। ওই মাসেই ২৪ ঘন্টায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চ ২৪২৮ জনে পৌঁছায়। তারপর থেকেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা পাঁচশর নিচে নেমে আসে গত শনিবার। ওইদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ৪০৮ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে এই সংখ্যা পরের তিনদিন বাড়লেও পাঁচশ ছাড়ায়নি।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশের হাসপাতালগুলোতে ভর্তি হওয়া ৩৮৮ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে রাজধানীতে ১১৭ জন এবং রাজধানীর বাইরে ২৭১ জন। এই মুহূর্তে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে এক হাজার ৭০৪ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪২৯ জন ডেঙ্গু রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। চলতি বছরের শুরু থেকে গত বুধবার পর্যন্ত ৮৬ হাজার ৫৪৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।
এর মধ্যে ৮৪ হাজার ৬১৫ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন, শতাংশের হিসাবে ৯৮ শতাংশ। রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গু সন্দেহে ২২৪টি মৃত্যুর তথ্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ১২৬টির তথ্য পর্যালোচনা করে ৭৫টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত কারণে বলে নিশ্চিত করেছে আইইডিসিআর।