বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) তিন বিশ্ববি-দ্যালয়ের উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ করেছেন ছাত্র ফেডারেশনের নেতাকর্মীরা। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকের সামনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহা-ঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।
এর আগে প্রতিবাদী সমাবেশে ছাত্র ফেডারেশনের নেতা-কর্মীরা বলেন, ‘আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঠা-মোটাই স্বৈরতান্ত্রিক। বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মতান্ত্রিকভাবে উপাচার্য নিয়োগ দেওয়া হয় না। সরকার নির্ধারণ করে দেয় উপাচার্য কে হবে। সরকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে তাদের পুতুল উপাচার্য নিয়োগ দেয়।’
তারা বলেন, ‘বর্তমান উপাচার্যদের কথাবার্তা, আচার-আচরণ নিয়েও প্রশ্ন আছে। উপাচার্য হয়ে তাদের একমাত্র কাজ হচ্ছে লুটপাট করে খাওয়া। লুটপাটের ভাগ দিয়ে ৰমতায় বেশিদিন টিকে থাকা।’
বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেনের সঞ্চালনায় প্রতিবাদী সমাবেশে শিৰা বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মিরান শাহ, মহানগর ছাত্র ফেডারেশনের আহ্বায়ক ইয়াসিন আরাফাত, যুগ্ম আহ্বায়ক জিন্নাত আরা প্রমুখ বক্তব্য দেন।