স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে বাসের ধাক্কায় পা হারিয়েছেন এক রিকশাভ্যান চালক। তার নাম মো. সুলতান। গত বুধবার দিবাগত রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে (রামেক) অস্ত্রপচারের মাধ্যমে তার পা কেটে ফেলা হয়। এই ঘটনায় উর্মি পরিবহন নামে একটি বাসটি জব্দ করেছে পুলিশ। আহত সুলতানের বাড়ি জেলার দুর্গাপুর উপজেলার পালি গ্রামে। তার বাবার নাম ঝড়ু। সুলতানের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। রিকশাভ্যান চালিয়ে তার সংসার চলে।
সুলতানের স্ত্রী রিনা খাতুন জানান, গত বুধবার সকালে সুলতান দুর্গাপুরের একটি খামার থেকে ডিম নিয়ে রাজশাহীর আরডিএ মার্কেটের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে রাজশাহী মহানগরীর বিনোদপুর এলাকায় রাজশাহী থেকে ছেড়ে যাওয়া নাটোরগামী উর্মি পরিবহন নামের একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে তার ডান পা গুরম্নতর জখম হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
হাসপাতালের উপ-পরিচালক সাইফুর ফেরদৌস বলেন, রাত আটটার দিকে তার ডান পা কেটে ফেলতে হয়েছে। বর্তমানে তিনি রামেক হাসপাতালের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের ৩৬ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন আছেন। তার অবস্থা এখন শঙ্কামুক্ত বলে জানান তিনি।
নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, উর্মি পরিবহন নামের একটি বাস জব্দ হয়েছে। ঘটনার পর বাস থামিয়ে চালক ও তার সহকারি পালিয়ে গেছে। তাদের সনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।