এফএনএস: বদলি ও পদায়নের জন্য দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের স্বাক্ষর জাল করে তদবির এবং চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে খাদ্য অধিদপ্তর। কর্মকর্তা-কর্মচারীকে এসব কর্মকা- থেকে বিরত থাকতে নির্দেশনা দিয়ে অধিদপ্তর বলছে, অন্যথায় বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, খাদ্য অধিদপ্তরের আওতাধীন কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরির শৃংখলা বর্হিভূত আচরণ বা কর্মকা- যথাযথ কর্তৃপক্ষের গোচরীভূত হয়েছে। এতে আরও বলা হয়, বিনা অনুমতিতে কর্মস্থল ত্যাগ করে খাদ্যভবনে তদবিরের জন্য ঘোরাঘুরি এবং অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মূল্যবান সময় অপচয় ঘটানোসহ দাপ্তরিক কর্মপরিবেশ বিনষ্ট করা। দাপ্তরিক নথিপত্রের গোপনীয়তা ও তথ্য পাচার করা। বদলি-পদায়নে অসুদাপায় অবলম্বনের কৌশল নিয়ে চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যম ছাড়া শৃঙ্খলা পরিপন্থিভাবে সরাসরি মন্ত্রী/সচিব/মহাপরিচালক/পরিচালকের কাছে বিভিন্ন ধরনের আবেদন ও চিঠিপত্র প্রেরণ। সরকারি কর্মচারীর আচরণ বিধিমালা ভঙ্গ করে বিভিন্ন সুবিধা আদায়ের জন্য বিশিষ্ট ব্যক্তির মাধ্যমে তদবির ও চাপ প্রয়োগ।
বদলি, পদায়ন ইত্যাদি সুবিধা আদায়ের জনা বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের ভুয়া/জাল স্বাক্ষরযুক্ত সুপারিশপত্র/ডিও এবং পত্র অধিদপ্তরে প্রেরণ।’ চাকরির নিয়ম ও শৃঙ্খলা বহির্ভূত এ ধরনের আচরণ বা কর্মকা- থেকে খাদ্য অধিদপ্তরের আওতাধীন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।