সোনালী ডেস্ক: চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও বগুড়ায় ৬ হাজার ২ শ পিস ইয়াবা এবং ১ শ ৩০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। বগুড়ায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ ব্যুরো জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুটি সীমানেত্ম বিজিবি সদস্যরা পৃথক অভিযান চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৪ হাজার পিস ইয়াবা ও ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে। শুক্রবার সকালে ৫৩ বিজিবি সদস্যরা ২টি সীমানত্ম এলাকায় এ অভিযান চালায়।
৫৩ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহবুবুর রহমান স্বাড়্গরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা গেছে, ওয়াহেদপুর বিওপি’র একটি টহল দল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সীমানত্ম পিলার ১৩/৩-এস হতে আনুমানিক ৩ কি. মি. বাংলাদেশের অভ্যনত্মরে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার পাকা ইউনিয়নের শিয়ালপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৪ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করে যার আনুমানিক মূল্য ১২ লাখ টাকা।
অপরদিকে, মনাকষা বিওপি’র একটি টহল দল ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সীমানত্ম পিলার ৭/৯-এস হতে আনুমানিক ৭ কি.মি. বাংলাদেশের অভ্যনত্মরে শিবগঞ্জ উপজেলার দূর্লভপুর ইউনিয়নের গংগারামপুর এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১ শ ৩০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে যার আনুমানিক মূল্য ৫২ হাজার টাকা।
বগুড়া প্রতিনিধি জানান, বগুড়া গোয়েন্দা পুলিশ ডিবি’র ঝটিকা অভিযানে শহরের চারমাথা বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে ২২০০ পিস ইয়াবাসহ ৪ মাদকব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হল, আবদুল আহাদ লিমন (২৮), আলম মিয়া (৩৪), মাহাফেল মিয়া (২৬) ও শাহাদুল ইসলাম (২৮)। তাদের সকলের বাড়ি গাইবান্ধা জেলায় ।
বগুড়া জেলা পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে বগুড়া গোয়েন্দা ইউনিটের একটি বিশেষ টিম শহরের চারমাথা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় অভিযান চালায়।
সূত্র জানায়, এ সময় মাদক বিক্রির জন্য আটককৃতরা বাস টার্মিনাল এলাকায় অবস্থান করছিল। ডিবি টিম প্রথমে তাদের চ্যালেঞ্জ করে ও পরে তাদের দেহ তলস্নাশি করে তাদের হেফাজত থেকে ২ হাজার ২ শ পিস ইয়াবা জব্দ এবং ওই চার মাদকবিক্রেতাকে আটক করা হয়।