এফএনএস: বাণিজ্য অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে আজ শুক্রবার থেকে শুর্ব হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকে এবারের ভর্তি পরীক্ষা। একহাজার ২৫০টি আসনের জন্য ২৯ হাজার ৫৮ জন ভর্তিচ্ছু ক্যাম্পাসের ৫৬টি কেন্দ্রে সকাল ১০টা থেকে দেড় ঘণ্টার পরীক্ষায় বসবেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
অর্থাৎ প্রতিটি আসনের জন্য ২৩ জনের বেশি প্রার্থী লড়বেন। এবার নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষার পাশাপাশি লিখিত পরীক্ষাও দিতে হবে ভর্তিচ্ছুদের। মোট ১২০ নম্বরের মধ্যে ৭৫ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য ৫০ মিনিট এবং ৪৫ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪০ মিনিট সময় পাবেন তারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এমন কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস/যন্ত্র সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। পরীক্ষা চলাকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত দায়িত্ব পরিচালিত হবে।
এদিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের সহযোগিতায় ছাত্রলীগের টি-শার্ট পরে প্রায় ৪০০ নেতা-কর্মীসহ দুই হাজার স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে বলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ জানিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস এ কর্মূচির কথা জানান।
শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন এ সময় সেখানে উপসি’ত ছিলেন। কর্মসূচিগুলো হলো- পরীক্ষার আগের রাতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের হলে থাকার ব্যবস’া, ভর্তিচ্ছুদের পরীক্ষার কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ‘জয় বাংলা ফ্রি বাইক সার্ভিস’, সুপেয় খাবার পানি সরবরাহ, কলম ও আনুষঙ্গিক শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, শিক্ষার্থীদের ব্যবহৃত কিন’ পরীক্ষাকেন্দ্রে নেওয়ার অনুপযোগী জিনিসপত্র রাখার ব্যবস’া, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য হুইল চেয়ার ও প্রয়োজনীয় লজিস্টিক সরবরাহ, ভর্তিচ্ছুদের শিক্ষার্থীদের সাথে আগত অভিভাবকদের বিশ্রামের জন্য চেয়ার, হাতপাখা ও খাবার পানির ব্যবস’া করা। এছাড়া বিভিন্ন পয়েন্টে স’ায়ী তথ্যকেন্দ্র থেকে ভর্তিচ্ছুদের প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করা হবে এবং হটলাইনের মাধ্যমে যে কোনো প্রয়োজনে তাৎক্ষণিক সেবা প্রদানের ব্যবস’া করা হবে। পরীক্ষাকেন্দ্র পরিচিতির জন্য দিক নির্দেশক চিহ্ন ও সার্বক্ষণিক স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।