নওগাঁ ব্যুরো: নওগাঁ শহরে প্রকাশ্য দিবালোকে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ বলছে, ডাকাতির উদ্দেশ্যে এই হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এই নৃশংস হত্যাকা-ের ঘটনাটি ঘটেছে শহরের পার-নওগাঁ ধোপাপাড়া ছোট যমুনা নদীর পারঘাটা সংলগ্ন মহলস্নায় ।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই মহলস্নায় নিজস্ব বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে অ্যালুমনিয়াম সামগ্রী ব্যবসায়ী ইসরাইল তার স্ত্রী ফাহিমা বেগমকে (৪৫) নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। তাদের কোন সনত্মান ছিল না। ইসরাইল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চলে গেলে তার স্ত্রী একাই বাড়িতে থাকেন। দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় কাজের মেয়ে তার সাথে থাকে।
বুধবার সকাল ৯টার দিকে ইসরাইল শহরের কাপড়পট্টির পুরাতন সোনালী ব্যাংক এলাকায় অবস্থিত তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চলে যান। সকাল অনুমান সাড়ে ১১টার দিকে কাজের মেয়ে ওই বাসায় এসে ফাহিমা বেগমকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করতে থাকে। তার চিৎকার শুনে আশেপাশের প্রতিবেশিরা ছুটে আসেন। সংবাদ পেয়ে স্বামী ইসরাইলও আসেন। সাথে সাথে তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ধারণা করা হচ্ছে সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে হত্যাকা-ের ওই ঘটনাটি সংঘটিত হয়েছে। লাশ ময়না তদনেত্মর জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
সংবাদ পেয়ে নওগাঁ’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লিমন রায় এবং সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ সোহরাওয়ার্দি হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বিকাল সাড়ে ৩টায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লিমন রায় জানান, এখনও তদনত্ম চলছে। প্রাথমিকভাবে ডাকাতির ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। এখনও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রসত্মুতি চলছিল।