এফএনএস: গত ৫ বছরে ১২ হাজারের বেশি মানুষ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে বিএনপির সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেনের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান।
এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদে দিনের কার্যক্রম শুরম্ন হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগের তথ্য অনুসারে, গত পাঁচবছরে ১২ হাজার ৫৪ জন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে। এসব দুর্ঘটনায় দায়ের করা মামলাসমূহের নিষ্পত্তির জন্য আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ অব্যাহত আছে।
বিএনপির সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য রম্নমিন ফারহানার এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের দেশের মাটির অবস্থাটা একটু বিবেচনা করতে হবে। আমাদের দেশের মাটির অবস্থা আর ভারতের মাটির অবস্থা একরকম না। এখানে ভিন্নতা আছে। মাটির অবস্থার ভিন্নতার কারণে বুঝতে পারবেন সড়ক নির্মাণে ব্যয় কম বেশি কেন হয়। ভারতের সয়েল কন্ডিশন আর আমাদের সয়েল কন্ডিশন দেখলে বাসত্মবতা বুঝবেন। সড়কে যানজট প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ফোর লেন থেকে যানবাহনগুলো যখন টু লেনে এসে পড়ছে তখনই যানজট তৈরি হয়্‌।
ফোর লেনের কাজ শেষ হলে এই সমস্যা থাকবে না। সড়কে দুর্ঘটনা বন্ধে পথচারীদেরও সচেতন হতে হবে। বাচ্চা কোলে নিয়েও মানুষ রাসত্মা পারাপার হয়। এখানে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে তাহলেই দুর্ঘটনা বন্ধ করতে পারবো, বলেন তিনি। সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য খোদেজা নাসরিন আখতার হোসেনের এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে সেতুমন্ত্রী জানান, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া দ্বিতীয় পদ্মাসেতু নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন।
মাওয়া-জাজিরা পদ্মাসেতুর কাজ শেষ হলে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া দ্বিতীয় পদ্মাসেতুর কাজ শুরম্ন হবে বলেও তিনি জানান। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, পদ্মাসেতুর কাজ এগিয়ে চলেছে। সার্বিকভাবে ইতোমধ্যে ৭৩ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। মাওয়া থেকে জাজিরা পর্যনত্ম ৬.১৫ কিলোমিটার পদ্মাসেতুর কাজ চলমান। এই সেতুর কাজ শেষ হলে দ্বিতীয় পদ্মাসেতুর কাজ ধরা হবে। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া দ্বিতীয় পদ্মাসেতু নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন। প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন। একটির কাজ শেষ হলে আরেকটির কাজ ধরবো।