গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: গোদাগাড়ীতে ধর্ষণের শিকার আদিবাসী বুদ্ধি প্রতিবন্ধি কিশোরী এখন ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তাকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স’ানান্তরের কথা বলা হলেও অর্থাভাবে সেখানে নিতে পারছেন না তার স্বজনরা। অভিযুক্ত গোদাগাড়ী উপজেলা গোগ্রাম ইউনিয়নের মোলৱাপাড়া গ্রামের সেতু ম-লের ছেলে রনি (২০) এ মামলায় বর্তমানে কারাগারে।
মেয়েটির স্বজনরা অভিযোগ করেন, বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে গত জানুয়ারি মাসে অভিযুক্ত রনি ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এতে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি জানতে পেরে স্বজনরা হাসপাতালে নিয়ে যায়। এরপর গোদাগাড়ী মডেল থানায় শনিবার রনিকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোদাগাড়ী মডেল থানার এসআই আব্দুর রউফ বলেন, ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার মেয়েটির বাবা মামলা করলে ওই দিনই অভিযুক্তকে আটক করা হয়। বর্তমানে সে কারাগারে রয়েছে। গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) হাসমত আলী বলেন, আসামির ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হবে। শিশুটি ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর তার সঙ্গে সেটি মেলানো হবে। তাহলে আসল রহস্য জানা যাবে।