এফএনএস: উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও তাদের মদদদাতাদের আজ রোববার থেকে শোকজ চিঠি পাঠানো হবে। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা জানান। এর মধ্যে মদদদাতা হিসেবে এমপি-মন্ত্রীরাও থাকতে পারেন বলেও তিনি জানান। গতকাল শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, উপজেলা নির্বাচনে দলের সিদ্ধানত্ম অমান্য করে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন এবং তাদের যারা মদদ দিয়েছিলেন তাদের শোকজ দেওয়ার সিদ্ধানত্ম ঠিক আছে। রোববার থেকে তাদের শোকজের চিঠি পাঠানো হবে। শোকজ পাঠানোর পর তারা তিন সপ্তাহ সময় পাবেন শোকজের জবাব দেওয়ার জন্য।
এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রায় দেড়শ’র মত বিদ্রোহী ও মদদদাতাকে শোকজ দেওয়া হবে। এর মধ্যে মদদদাতার সংখ্যা অর্ধেক হতে পারে। যাদের বিরম্নদ্ধে অভিযোগ রয়েছে তাদের মধ্যে দলের এমপি ও মন্ত্রী আছেন কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, মদদদাতাদের মধ্যে থাকতে পারে। উপজেলা নির্বাচনে বিরোধিতাকারীদের ব্যাপারে সিদ্ধানত্ম বাসত্মবায়ন নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের জানার কৌতূহল আছে। যাদের বিরম্নদ্ধে অভিযোগ আছে তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন ওবায়দুল কাদের।
বিএনপি উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নিলে নির্বাচন উৎসবমুখর করার জন্য প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি উন্মুক্ত থাকবে, এ ধরনের কথা বলা হয়েছিলো বলে অভিযুক্তরা বলছেন-এমন প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, এমন কোনো কথা দলের পক্ষ থেকে বলা হয়নি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কি এমন কোনো কথা বলেছিলেন? এর কোনো রেকর্ড আছে? হাওয়া থেকে কথা বললে-তো হবে না। সংবাদ সম্মেলনে অপর এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, জঙ্গি তৎপরতা একেবারে থেমে গেছে এমন কথা আমরা কখনও বলিনি। জঙ্গিবাদ আছে, এটা বৈশ্বিক সমস্যা। মালীবাগ, পল্টন, গুলিসত্মানসহ বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলার ঘটনা বিচ্ছিন্ন বলে আমরা মনে করি না। বড় কোনো ঘটনা ঘটানোর পরিকল্পনা হতে পারে এমন আশঙ্কাও রয়েছে। তবে আমরা সতর্ক আছি। আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থা দুর্বল না।
যকোনো পরিস্থিতির জন্য তারা প্রস্তুত আছে। বিএনপি নেতাদের পক্ষ থেকে দুর্নীতি সংক্রানত্ম অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, যাদের বিরম্নদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তারা কোনো মন্ত্রী বা এমপি নন। ‘বালিশ’ আর ‘পর্দা’ নিয়ে যাদের বিরম্নদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তারাতো মন্ত্রী বা এমপি নন। এটাতো হাওয়া ভবন না। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক, একেএম এনামুল হক শামীম, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপস্নব বড়ুয়া প্রমুখ।