এফএনএস: আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপির তথাকথিত হুমকিতে আমরা ভীত নই। বিএনপি সব সময় রাজনীতিতে ভুল করে আসছে, আরও ভুল করতে যাচ্ছে। তারা বলেছিল নির্বাচন বয়কট করবে কিন্তু করেনি। নির্বাচন করেছিল। পার্লামেন্টে আসবে না বলেছিল, পার্লামেন্টে এসেছে। তাদের ভূমিকা রাখতে আমরা বাধাও দিচ্ছি না।
গতকাল শুক্রবার দুপুরে পাবনার সুজানগর উপজেলার বিরাহিমপুর খোরশেদ আলম জামে মসজিদ উদ্ধোধনকালে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। নাসিম বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গি দমন হয়েছে। সারাদেশে উন্নয়ন কাজ চলছে। দেশে রোহিঙ্গা সমস্যা ছাড়া এখন কোনো সমস্যা নেই। এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, শেখ হাসিনার সরকার ২০৪১ সাল পর্যনত্ম যুগোপুযোগী কর্মসূচি গ্রহণ করেছে, যা বিগত অন্য কোনো সরকারই করতে পারেনি। তারা শুধু লুটপাট ও ত্রাসের রাজস্ব কায়েম করেছিল। আজ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই আপনারা নিশ্চিনেত্ম ঘুমাচ্ছেন, ব্যবসা-বাণিজ্য করছেন। কোনো ডাকাতি, রাহাজানি, লুটপাট নেই।
তিনি আরও বলেন, আজ পাবনায় এত সুন্দর একটি মসজিদ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হল এবং উদ্বোধন করা হল। এখানে নির্মাণ কাজে কোন চাঁদা দিতে হয়নি। কিন্তু বিএনপি জোট সরকার থাকলে অর্ধেক টাকা চাঁদাবাজদের পকেটে চলে যেত। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির, সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ তানভীর, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউর রহিম লাল, জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মোশারফ হোসেন, সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুলস্নাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার, সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহিন, পাবনা চেম্বার অব কমার্সের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুবুল আলম মুকুল, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল বাতেন মাস্টার, তরম্নণ সবাজ সেবক মানিকুজ্জামান মাণিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উলেস্নখ্য, ১৯৮৭ সালে ৬ সেপ্টেম্বর আজকের এই দিনে পাবনা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হলে বিরাহিমপুর নামক স্থানে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মোহাম্মদ নাসিমের শ্বশুর খোরশেদ আলম মৃত্যুবরণ করেন। তার স্মরণে পারিবারিক উদ্যোগে বিরাহিমপুরে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয়ে মসজিদটি নির্মাণ হয়েছে।