এফএনএস: নিরাপত্তাকে সর্বাধিক গুরম্নত্ব দিয়ে এগিয়ে চলেছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ। নির্ধারিত সময়েই এ প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।
গতকাল শুক্রবার ব্র্যাক সেন্টারে রিজিওনাল মিটিং অন দ্য মেজারমেন্ট অ্যান্ড অ্যাসেসমেন্ট অব ইন্টারগেটেড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমস ইউথইন রেগুলেটরি বডিস-শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে তিনি এ কথা জানান। গত ২ থেকে ৬ সেপ্টেম্বর পর্যনত্ম পাঁচ দিনের এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বাংলাদেশসহ কানাডা, অস্ট্রিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।
সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কর্তৃপক্ষ ও আনত্মর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা (আইএইএ) যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে। স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তার বিষয় নিশ্চিত করার জন্য যা যা প্রয়োজন সবধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। নির্ধারিত সিডিউল অনুযায়ী, প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলেছে। আশা করছি, যথা সময়েই এ প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হবে।
এ বছরের মধ্যে রাশিয়া এ প্রকল্পে প্রয়োজনীয় বিশেষজ্ঞ জনবল বাড়াবে। রাশিয়াতে এ প্রকল্পের যন্ত্রপাতি তৈরির কাজও এগিয়ে চলছে। আমরা এ কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করে এসেছি। সেখানে মানসম্পন্ন কাজ হচ্ছে। একই কারখানায় ভারতের জন্যও যন্ত্রপাতি তৈরি হচ্ছে। তাদের সঙ্গেও আমরা কথা বলেছি। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, বাংলাদেশ যথাযথ ও উচ্চমানের একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পেতে যাচ্ছে।
এদিকে, কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানের বক্তব্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী বলেন, এ প্রযুক্তির নিরাপত্তার দিকটাই চ্যালেঞ্জিং। এ চ্যালেঞ্জকে অতিক্রম করেই প্রযুক্তিকে এগিয়ে নিতে হবে। এর জন্য প্রশিক্ষণ কর্মশালা অত্যনত্ম গুরম্নত্বপূর্ণ। পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ডিজাইন, কমিশনিং, নিরাপত্তা, ব্যবস্থাপনা, গুণগতমান আরও উন্নত করার মধ্য দিয়ে এ খাতের ভবিষ্যতকে সমৃদ্ধ করতে হবে। এর কার্যক্রমকে গতিশীল করে তুলতে প্রযুক্তিগত দিক নিয়ে মতবিনিময়ের গুরম্নত্ব রয়েছে।
এর মাধ্যমে এ প্রযুক্তির উজ্জ্বল সম্ভাবনাকে ত্বরান্বিত করতে হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক বলেন, এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার মাধ্যমে অভিজ্ঞতা অর্জন মাঠপর্যায়ের কাজের ক্ষেত্রে গুরম্নত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। অভিজ্ঞতা অর্জনের উপর গুরম্নত্ব দিয়েই এ ধরনের কর্মশালা আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- আনত্মর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার বিশেষজ্ঞ গ্যাবরিয়েল সোরে। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্বে) অধ্যাপক ড. শাহানা আফরোজ।