এফএনএস: ঢাকায় যে মেট্রোরেল হচ্ছে, তার স্টেশনগুলোর নাম গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলায় নিহত জাপানিদের নামে করার সিদ্ধানত্ম নিয়েছে সরকার। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের কাছে এই তথ্য জেনে বাংলাদেশের সিদ্ধানেত্মর প্রশংসা করেছেন জাপানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তোশিকো আবে।
মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে চতুর্থ ভারত মহাসাগরীয় সম্মেলনে গত বুধবার দুই প্রতিমন্ত্রীর বৈঠকে এই বিষয়ে আলোচনা হয় বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। ঢাকায় প্রথম মেট্রোরেলের কাজ চলছে জাপানি অর্থায়নে; জাপানের অনেক প্রকৌশলী ও কর্মীও এই প্রকল্পে কাজ করছেন।
২০১৬ সালে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় নিহত বিদেশিদের মধ্যে সাতজন জাপানি ছিলেন, যারা মেট্রোরেল প্রকল্পে সমীক্ষক হিসেবে কাজ করছিলেন। তারা হলেন- কোইও ওগাসাওয়ারা, হিরোশি তানাকা, নোবুহিরো কুরোসাকি, হিদেকি হাশিমতো, ওকামুরা মাকোতো, ইউকো সাকাই ও শিমোদায়রা রম্নই।
ঢাকায় চলমান মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ ২০২২ সালের মধ্যে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তোশিকো আবের সঙ্গে বৈঠকে শাহরিয়ার আলম জাপানের জনশক্তি আমদানির উৎস দেশ হিসেবে বাংলাদেশের নাম অনত্মর্ভুক্তির জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান।