বাঘা প্রতিনিধি: বাঘায় বিএনপি’র সভাস’লে পুলিশের হাত থেকে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আসামি ছিনিয়ে নিয়েছে বিএনপি’র একদল কর্মী-সমর্থক। ছিনতাইকৃত আসামির নাম শামিম সরকার। তার বাড়ি উপজেলার বামনডাঙা গ্রামে। মঙ্গলবার দুপুরে পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল হোসেনের বাড়ির আঙিনায় বিএনপি’র বর্ধিত সভা শেষে এই ঘটনা ঘটে।
স’ানীয় লোকজন জানান, মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যনত্ম উপজেলার বাজুবাঘা নতুনপাড়া এলাকায় বাঘা পৌর বিএনপি’র সভাপতি কামাল হোসেনের বাড়ির আঙিনায় বিএনপির বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার শেষ মুহূর্তে বাড়ির গেটে গিয়ে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি শামিম সরকাকে গ্রেপ্তার করে বাঘা থানার পুলিশ। এ সময় গেটে থাকা দলীয় কর্মী-সমর্থকরা শামিমকে পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেয়।
তবে উপ-পুলিশ পরিদর্শক সইবুর রহমান বলেন, আসামি ছিনিয়ে নেয়া হয়নি। আমি তার পরিহিত পাঞ্জাবি ধরেছিলাম। এ সময় পাঞ্জাবি ছিঁড়ে আসামি পালিয়ে যায়।
থানা পুলিশের একটি সূত্র ও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ছাত্রনেতা জানান, শামিম রাজশাহী জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক। তার পিতার নাম বাচ্চু সরকার। সে ২০১৮ সালে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটূক্তিসহ অশস্নীল ছবি ছেড়ে আলোচিত হয়। এ ঘটনায় তার নামে বাঘা থানায় একটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়। সেই মামলায় আদালত থেকে ওয়ারেন্ট ছিলো তার নামে।
থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, সভাস’লে একজন ওয়ারেন্টি আসামি আছে খবর পেয়ে দু জন অফিসার পাঠিয়েছিলাম। অনেকেই আসামি ছিনিয়ে নেয়ার কথা বলছে। তবে সংশিস্নষ্ট দারোগা আমার কাছে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেননি। তিনি বিষয়টি তদনত্ম করে দেখবেন বলে জানান।