এফএনএস: জোর করে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠানো হবে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। গতকাল মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি। ডিপেস্নাম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশনস, বাংলাদেশ (ডিক্যাব) নির্বাহী কমিটির নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন। মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন। এ সময় তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে জোর করে পাঠানো হবে না। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। ভাসানচর রোহিঙ্গাদের জন্য স’ায়ী সমাধান নয় বলেও মনত্মব্য করেন তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা ভাসানচরে গেলেও সংকটের শেষ হবে না। এটি হবে সাময়িক সমাধান। এবার বর্ষায় ভূমিধসের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠাতে চেয়েছিলেন। সেখানে রোহিঙ্গারা গেলে তাদের রম্নজি-রোজগারের ব্যবস’া হতো। এ সময় এনজিওগুলোর সমালোচনা করে আবদুল মোমেন বলেন, রোহিঙ্গারা ভাসানচরে যেতে রাজি হয়নি। এ বিষয়ে এনজিওরা বাধা দিয়েছে। কারণ সেখানে তাদের জন্য ফাইভস্টার হোটেলের ব্যবস’া নেই। উলেস্নখ্য, মিয়ানমার থেকে বাস’চ্যুত হয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নোয়াখালীর ভাসানচরে স’ানানত্মরে সরকারের পরিকল্পনাকে গত মার্চ মাসে স্বাগত জানায় জাতিসংঘ। তবে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স’ানানত্মর করা হলে সেখানে বসবাসের জন্য কী ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকবে- তা সরকারের কাছে জানতে চায় সংস’াটি।