স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী ‘রাজশাহী সরকারি মাদ্রাসা’র নাম পরিবর্তন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এখন থেকে মাদ্রাসাটি ‘হাজী মুহম্মদ মুহসীন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়’ নামে পরিচালিত হবে।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ গতকালই এ সংক্রানত্ম প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব লুৎফুন নাহার সাড়্গরিত প্রজ্ঞাপনে বলা বলেছে, ‘রাজশাহী সরকারি মাদ্রাসা’ এর নাম পরিবর্তন করে ‘হাজী মুহম্মদ মুহসীন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়’ নামকরণ করা হলো।’
জানতে চাইলে রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিড়্গা ও আইসিটি) মো. শরিফুল হক বলেন, এ বিষয়টা নিয়ে বিভিন্ন মহলে আলাপ-আলোচনা চলেছে। নামটি পরিবর্তন হওয়ার কথা ছিলো। তবে মন্ত্রণালয়ে তা হয়েছে কি না তার জানা নেই। নাম পরিবর্তন হলে দু’একদিনের মধ্যে তিনি কাগজপত্র হাতে পাবেন বলেও জানান।
প্রসঙ্গত, ১৮৭৪ সালে ‘রাজশাহী সরকারি মাদ্রাসা’ প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৩০ সাল পর্যনত্ম কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এতে মাদ্রাসা পাঠ্যক্রম চালু ছিল। মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ঢাকা প্রতিষ্ঠিত হলে ১৯৩১ সালে এটি ঢাকার অধীনে চলে আসে। তখন থেকে মাদ্রাসার পাঠ্যক্রম বাদ দিয়ে এখানে সাধারণ শিক্ষা পাঠ্যক্রম চালু করা হয়। কিন’ মাদ্রাসা নামটি থেকেই যায়।
ফলে নানা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক এবং বর্তমান শিড়্গার্থীরা। এ নিয়ে কয়েকবছর আগে মাদ্রাসায় সমাজের সুধীদের নিয়ে একটি মতবিনিময় সভা হয়। সভায় উপসি’ত সবাই মাদ্রাসার নামটি ‘হাজী মুহম্মদ মুহসীন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়’ করতে সম্মত হন। কিন’ দীর্ঘ দিনেও নামটি পরিবর্তন না করায় শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেন।
গেল বছর শিড়্গা প্রতিষ্ঠানটিতে একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশাও এর নাম পরিবর্তনের পড়্গে মত দেন। অবশেষে ঐতিহ্যবাহী এই শিড়্গা প্রতিষ্ঠানটির নাম পরিবর্তন করা হলো।