এফএনএস: ঢাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে সন্দেহভাজন জঙ্গিদের বোমা হামলার ঘটনার মামলাগুলোর তদনেত্ম সহায়তার জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান ও ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. মনিরম্নল ইসলামকে প্রধান করে গঠিত এই কমিটির সদস্য সচিব হলেন ডিবির ঢাকা মহানগর যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম।
গত শনিবার রাতে নতুন করে হামলার পর গত রোববার ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয় এই কমিটি গঠন করে দেয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের স্পেশাল অ্যাকশন গ্রম্নপের অতিরিক্ত উপকমিশনার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন, কাউন্টার টেরোরিজমের অতিরিক্ত উপকমিশনার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, সাইবার সিকিউরিটি এ- ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার আ ফ ম আল কিবরিয়া, গোয়েন্দা দক্ষিণ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার হাসান আরাফাত, রমনা বিভাগের নিউ মার্কেট জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. সাইফুল ইসলাম ও মতিঝিল বিভাগের খিলগাঁও জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. জাহিদুল ইসলাম সোহাগ।
ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো. মাসুদুর রহমান বলেন, সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে কমিটি প্রয়োজনে যে কোনো কর্মকর্তাকে কো-অপ্ট করতে পারবেন। ২০১৬ সালে গুলশান হামলার পর সাঁড়াশি অভিযানে জঙ্গিদের মেরম্নদ- ভেঙে দেওয়ার দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী করলেও সমপ্রতি ঢাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে হাতবোমা হামলার কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনার পর মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের নামে দায় স্বীকারের বার্তা এলেও তা নাকচ করে বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, বাংলাদেশের জঙ্গিরা এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। সামপ্রতিক সময়ে ঢাকা মহানগর এলাকায় পুলিশের উপর বোমা হামলার ঘটনায় পল্টন থানায় দুটি, তেজগাঁও থানায় ১টি, শাহাবাগ থানায় ১টি ও নিউ মার্কেট থানায় ১টি মামলা রয়েছে। তবে কারা এই হামলা চালাচ্ছে, তার কোনো কূলকিনারা না হওয়ার মধ্যে তদনেত্ম সহায়তায় মনিরম্নলের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করা হল। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আশঙ্কা করছেন, জঙ্গিরা এভাবে ছোট ছোট হামলার মাধ্যমে বড় হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।