বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : ডেঙ্গু আক্রানত্ম হয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. শাহানারা হোসেনের মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার রাত ৯টায় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আজ সোমবার ড. শাহানারার স্মরণে একটি শোক সভার আয়োজন করেছে ইতিহাস বিভাগ। বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মর্তুজা খালেদ এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, বার্ধক্য জনিত রোগে দীর্ঘদিন ধরে ভূগছিলেন অধ্যাপক ড. শাহানারা। গত মাসের শুরম্নতে ডেঙ্গু আক্রানত্ম হয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। চিকিৎসকরা তার বার্ধক্যের কারণে ডেঙ্গুর চিকিৎসা দিতে পারছিলেন না। শনিবার সন্ধ্যায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। এরপর রাত ৯টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
অধ্যাপক মর্তুজা খালেদ আরও বলেন, গতকাল রোববার ঢাকার কলাবাগান ডলফিন মসজিদে বাদ জোহর মরহুমার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী, দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
জানা যায়, ড. শাহানারা হোসেন ১৯৩৭ সালের ১ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স শেষে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের সোয়াস থেকে এমএ এবং ১৯৬৫ সালে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। তিনি ১৯৬০ সালে রাবির ইতিহাস বিভাগে যোগদান করেন। ড. শাহানারা রাবির মন্নুজান হলের প্রথম প্রাধ্যড়্গের দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি বিভাগীয় সভাপতি, সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। তিনি রাবি থেকে প্রথম ইউজিসি অধ্যাপক হবার গৌরব অর্জন করেন। তার স্বামী প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. এবিএম হোসেন রাবির প্রথম ইমেরিটাস প্রফেসর।
প্রাচীন বাংলার ইতিহাস নিয়ে বাংলাদেশে প্রথম তিনিই বিশেষত্ব অর্জন করেন। ২০১৮ সালের ফেব্রম্নয়ারিতে বাংলা একাডেমি থেকে ড. শাহানারা হোসেনের আত্মজীবনী ‘বেলা শেষের পাঁচালি’ প্রকাশ করে।
তার মৃত্যুতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও নর্থ বেঙগল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর আবদুল খালেক ও এনবিআইইউ’র চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা রাশেদা খালেক গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তারা মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকার্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।