বাঘা প্রতিনিধি: বাঘায় পিসত্মল ও রাইফেলের ১২ রাউন্ড গুলিসহ ফিরোজা বেগম নামের এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার রাত আড়াইটার দিকে পুুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার আড়ানী বাজারের পূর্ব দিকের বেইলিব্রিজ সংলগ্ন তার বাড়ি থেকে গুলি, গাঁজা, রামদা ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। ফিরোজা বেগম আড়ানী পৌরবাজারের রাসেল আহম্মেদ ফিরোজের স্ত্রী। এছাড়া মাদকসহ আরও ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
থানা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত আড়াইটার দিকে আড়ানী জোতরঘু গ্রামের কুদ্দুস আলীর ছেলে খাইরুল ইসলামকে (২৫) বাঘা থানার পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আড়ানী বাজার থেকে ৬০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। আটক খায়রুল ইসলাম মাদকব্যবসায়ী রাসেল আহম্মেদ ফিরোজ ও তার স্ত্রী ফিরোজা বেগমের নিকট হতে ইয়াবা ক্রয় করা হয় বলে পুলিশকে জানায়। সে মোতাবেক রাসেল আহম্মেদ ফিরোজের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০০ পিস ইয়াবা, ৫০০ গ্রাম গাঁজা, ৬ রাউন্ড পিসত্মলের তাজা গুলি, রাইফেলের ৬ রাউন্ড তাজা গুলি, ১টি বড় রামদা উদ্ধার করা হয়। এ সময় ফিরোজা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে রাসেল আহম্মেদ ফিরোজ পালিয়ে যায়।
অপর দিকে বিকেলে কালিদাসখালী সড়ক ঘাট থেকে ৭ গ্রাম গাঁজাসহ ২ যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। এরা হল, উপজেলার চকরাজাপুর ইউনিয়নের চকরাজাপুর গ্রামের শাহাজাহান আলীর ছেলে আরব আলী (২৩) ও লালন সরকারের ছেলে সোহাগ রানা (২৫)।
এ বিষয়ে বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তারকৃতদের নামে মাদক ও অস্ত্র আইনে পৃথক ৩টি মামলা দিয়ে শনিবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।