সোনালী ডেস্ক: বাংলাদেশের উন্নয়ন হচ্ছে ঠিকই। কিন্তু প্রবৃদ্ধি ও জাতীয় আয়ের উন্নয়নের পাশাপাশি শিড়্গা ও স্বাস্থ্যের পরিমাণগত উন্নয়ন হতে হবে এবং একই সাথে তা মানসম্মত করতে হবে। উন্নয়ন হতে হবে মানুষের জন্য। তা না হলে সেই উন্নয়ন টেকসই হবে না। অসমতা ও বৈষম্য আরও বাড়বে।
গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত “উন্নয়ন, বঞ্চনা ও অসমতা” শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মাইনুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে বক্তারা আরও বলেন, উন্নয়ন হলেও সেই উন্নয়ন যাচ্ছে ১০ শতাংশ মানুষের হাতে। তাদের হাতেই সমসত্ম সম্পদ কুড়্গিগত হচ্ছে। উন্নয়নের এই পাহাড়সম অসমতায় সামাজিক অস্থিরতা আরও বাড়বে।
বক্তারা বলেন, ৪৮ বছরেও ভূমি ও কৃষি সংস্কার হয়নি। আর ভূমি ও কৃষি সংস্কার ছাড়া উন্নয়নের সুফল সবার ঘরে পৌঁছাবে না। অন্যদিকে উন্নয়নের সমতার জন্য শিড়্গা, স্বাস্থ্যসহ সকল ড়্গেত্রে বাজার ব্যবস্থার দৌরাত্ম্য বন্ধ করতে হবে। তবেই সব শ্রেণির মানুষ বঞ্চনা থেকে রেহাই পাবেন। তার জন্য সবার আগে সরকার ও সংসদে শ্রমজীবী মানুষের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে হবে। শ্রমজীবী মানুষের প্রতিনিধিত্বকারী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টিকেই এ দায়িত্ব নিতে হবে।
সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি, পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, ইউএনডিপি’র সাবেক পরিচালক ড. সেলিম জাহান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এমএম আকাশ প্রমুখ।