স্টাফ রিপোর্টার: রোগীর নাশতায় পচা পাউরম্নটি ও কলা দেওয়ার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ফজলে হোসেন বাদশা এমপি। ঘটনার সুষ্ঠু তদনত্ম করে অভিযোগের প্রমাণ পেলে সংশিস্নষ্ট ঠিকাদারের লাইসেন্স বাতিলসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য গতকাল শুক্রবার তিনি হাসপাতাল পরিচালককে চিঠি দিয়েছেন।
রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ও রামেক হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ফজলে হোসেন বাদশা সাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়েছে- ‘প্রকাশিত সংবাদের মাধ্যমে গত ২৯ আগস্ট হাসপাতালের ৯নং ওয়ার্ডে খারাপ পাউরম্নটি ও কলা সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি বার বার নির্দেশ দিয়েছি রোগীদের খাদ্য সম্পর্কে যেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করে। প্রতিমাসে আমি হাসপাতালে বিনা নোটিশে কিচেন তদারকি করি ও শর্ত মেনে খাদ্য সরবরাহ করা হয় কী না তা পরিদর্শন করি। কিন্তু ২৯ আগস্ট কিভাবে এই ধরনের নাশতা সরবরাহ করা হলো বিষয়টি তদনেত্মর প্রয়োজন। কোন ঠিকাদার এই ধরনের অপরাধমূলক কাজ করলো তার বিরম্নদ্ধে শাসিত্মমূলক ব্যবস্থা নেওয়া দরকার’।
চিঠিতে অবিলম্বে বিষয়টি তদনত্ম করে হাসপাতাল পরিচালনা কমিটির নিকট রিপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য হাসপাতাল পরিচালককে বলা হয়েছে। অপরাধ প্রমাণ হলে ঠিকাদারের সনদ বাতিলসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উলেস্নখ করে সাত দিনের মধ্যে বিষয়টি তাকে অবগত করার জন্য বলেছেন হাসপাতাল পর্ষদ সভাপতি।
এর আগে ২৯ আগস্ট সকালে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সকালের নাশতায় রোগীদের জন্য পচা পাউরম্নটি ও কলা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। পরে রোগীর স্বজনরা সেই পাউরম্নটি ও কলা নিয়ে হাসপাতাল পরিচালকের কাছে যান।