এফএনএস: সরকারি কাজের গতি এবং সেবা নিতে আসা মানুষের সুবিধা বাড়াতে মাঠ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সকাল ৯টা থেকে ৪০ মিনিট পর্যনত্ম অবশ্যই অফিস করতে হবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক পরিপত্রে বলা হয়েছে, সেবা নিতে আসা নাগরিকদের সুবিধা এবং সরকারি কর্মকা-ে গতিশীলতা আনতে ও সমন্বয় বাড়াতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল ৯টায় অফিসে আসবেন এবং আবশ্যকীয়ভাবে ৯টা ৪০ মিনিট পর্যনত্ম সেখানে অবস্থান করে অফিসের কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য এই নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে।
পরিপত্রে বলা হয়, সমপ্রতি পরিলক্ষিত হচ্ছে অফিসে আগমনকালে পথিমধ্যে দাফতরিক বা ব্যক্তিগত বিভিন্ন কাজের অজুহাত দেখিয়ে কতিপয় কর্মকর্তা-কর্মচারী সঠিক সময়ে অফিসে উপস্থিত হন না। ফলশ্রম্নতিতে সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে জনসাধারণ ও অন্যান্য সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রয়োজনীয় সংযোগ স্থাপন অসম্ভব হয়ে পড়ে। এতে সাধারণ নাগরিকগণ যেমন ক্ষতিগ্রসত্ম হন তেমনি সরকারি কাজের গতিও শস্নথ হয়। এ প্রেক্ষাপটে মাঠ পর্যায়ে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এ অনুশাসন দেওয়া হয়েছে উলেস্নখ করে পরিপত্রে বলা হয়, তারা সকাল ৯টা থেকে ৯টা ৪০ মিনিট পর্যনত্ম আবশ্যকীয়ভাবে নিজ অফিস কক্ষে অবস্থান করে অফিসের স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। দাফতরিক কর্মসূচি প্রণয়নের সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যেন তাদের সকাল ৯টা থেকে ৯টা ৪০ মিনিট পর্যনত্ম অফিসে অবস্থান ব্যাহত না হয়। নির্দিষ্ট কর্মঘণ্টার মধ্যে অফিস কক্ষে বা দপ্তরে থেকে দায়িত্ব পালনকারী মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ক্ষেত্রে এই বাধ্যবাধকতা প্রযোজ্য হবে। তবে ভিভিআইপি বা ভিআইপিদের প্রটোকল দেওয়া, আকস্মিকভাবে সংগঠিত কোনো বড় ধরনের দুর্ঘটনা মোকাবিলা, গুরম্নত্বপূর্ণ সভায় যোগ দেওয়া এবং অনুমোদিত ভ্রমণসূচির মাধ্যমে সফরের ক্ষেত্রে এই বাধ্যবাধকতা প্রযোজ্য হবে না বলে পরিপত্রে বলা হয়েছে।