স্টাফ রিপোর্টার: মুঠোফোনে ‘সর্বহারা’ পরিচয় দিয়ে রাজশাহীর বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে চাঁদা দাবি করা হয়েছে। চাঁদা না দিলে ড়্গতি হবে বলে হুমকিও দেয়া হয়েছে। চাঁদার জন্য রাজশাহীর একজন জনপ্রতিনিধিকেও সর্বহারা পরিচয়ে ফোন দেয়া হয়েছে। গত বুধবার দুপুরে একটি নম্বর থেকে তাকে এ হুমকি দেওয়া হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ওই জনপ্রতিনিধি।
একই দিন রাজশাহীর এক ব্যবসায়ীকেও মোবাইল ফোনে হুমকি দেয় নিষিদ্ধ ঘোষিত সর্বহারা দলের নেতা পরিচয়ে একজন। এ সময় তার পরিবারকেও দেখে নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। গত তিন-চার দিন ধরে অব্যাহতভাবে এ হুমকি দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্যবসায়ীকে।
ওই ব্যবসায়ী জানান, বুধবার দুপুর পৌনে দুইটার দিকে ০১৯৯৭৪১৬০৪৭ নম্বর থেকে ওই ব্যবসায়ীকে এ হুমকি দেওয়া হয়। পরে বিষয়টি ওই ঠিকাদার গণমাধ্যমকর্মীদের এবং নগরীর বোয়ালিয়া থানার ওসিকে জানান। হুমকি পাওয়া ওই ঠিকাদার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, একটি অপরিচিত নম্বর থেকে আমাকে ফোন করে নিজেকে সর্বহারা দলের নেতা পরিচয় দিয়ে কথা বলতে শুরম্ন করে। এসময় আমি লাউড স্পীকার দেওয়ার কারণে ফোনের অপরপ্রানত্ম থেকে সে বিষয়টি টের পায়। এতে সে উত্তেজিত হয়ে আমাকে নানাভাবে হুমকি দিতে থাকে। একপর্যায়ে আমার পরিবারের সদস্যদেরও দেখে নেওয়া হবে বলে হুমকি দেয়। বিষয়টি পরে আমি থানার ওসিকে জানিয়েছি।
নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন বলেন, একজন ব্যবসায়ীকে মোবাইলে সর্বহারা পরিচয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে মৌখিকভাবে। তবে সর্বহারাদের তেমন কোনো কার্যক্রম নেই রাজশাহীতে। কাজেই কিছু টাকা হাতিয়ে নিতে ওই ব্যবসায়ীকে এই ধরনের হুমকি দিয়েছে।