স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের সহযোগিতায় ৫ বছর পর হারানো পরিবারকে ফিরে পেল আমেনা খাতুন জুথি (১৩)। গতকাল বুধবার আইনিপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জুথিকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এসি (ভিএসসি) সোনিয়া পারভীন, পুলিশ পরিদর্শক পলি দাস সহ জুথির পরিবারের সদস্যরা।
আরএমপি’র মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) গোলাম রম্নহুল কুদ্দুস বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ২০১৫ সালের ২ জানুয়ারির বিকালে রাজশাহী রেলস্টেশনে বসে কান্নাকাটি করছিল জুথি। এ সময় ফেরদৌস হোসেন নামে এক ব্যক্তি তাকে উদ্ধার করে শাহমখদুম থানা পুলিশের জিম্মায় রেখে যান। তখন তার বয়স মাত্র ৮ বছর।
জিজ্ঞাসাবাদে সে পুলিশকে জানায় তার বাবা বাহরাইন প্রবাসী এবং বাড়ি কুমিলস্নার লাঙ্গলকোট এলাকায়। সে ঢাকায় একটি বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করত। কিন্তু সেখানে অমানবিক নির্যাতনের ফলে সে উক্ত বাড়ি থেকে পালিয়ে ট্রেনে করে রাজশাহী চলে আসে। এরপর পুলিশ তাকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে হসত্মানত্মর করে। কিন্তু ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার তার পরিবারকে খুঁজে না পেয়ে দীর্ঘ মেয়াদি পুনর্বাসনের জন্য এসিডির কাছে হসত্মানত্মর করে।
সমপ্রতি পুলিশ পরিদর্শক পলি দাস জুথির পরিবারকে খুঁজে বের করতে কুমিলস্না পুলিশের সহযোগিতা চান। কুমিলস্না পুলিশ জুথির শারীরিক বিবরণ দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়। এরপর তার পরিবারের লোকজন পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করলে জুথিকে পরিবারের কাছে হসত্মানত্মর করা হয়।