বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৯-২০ শিড়্গাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীড়্গার পদ্ধতিতে আংশিক পরিবর্তন এনেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পূর্বের ইউনিট ভিত্তিক যে সীমাবদ্ধতা ছিল, তা বাতিল করা হয়েছে। ফলে একজন ভর্তিচ্ছু সবগুলো ইউনিটের পরীড়্গায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। এছাড়াও আবেদন ফি দুই হাজার ৩৫টাকা থেকে ১২শ ৫৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ২০-২২ অক্টোবর ভর্তি পরীড়্গা অনুষ্ঠিত হবে।
গতকাল মঙ্গলবার বিকালে উপাচার্যের সম্মেলন কড়্গে ভর্তি পরীড়্গা সংক্রানত্ম উপ-কমিটির সভায় এসব সিদ্ধানত্ম নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার।
অধ্যাপক প্রভাষ বলেন, উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান সভাপতিত্বে গতকাল বিকালে উপ-কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয় । সভায় সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পরীড়্গা পদ্ধতিতে আংশিক পরিবর্তন আনা হয়েছে। একজন শিড়্গার্থীর জন্য কেবল একটি ইউনিটে পরীড়্গার যে সীমাবদ্ধতা ছিল তা বাতিল করা হয়েছে। ফলে এখন আর ইউনিট ভিত্তিক পরীড়্গায় অংশগ্রহণের সীমাবদ্ধতা থাকছে না। ফলে একজন ভর্তিচ্ছু প্রতিটি ইউনিটেই পরীড়্গা দেওয়ার সুযোগ পাবে। এ ছাড়াও আবেদন ফি দুই হাজার ৩৫ টাকা থেকে কমিয়ে ১২শ ৫৫টাকা করা হয়েছে।’
এর আগে গত ২৪ জুলাই ভর্তি পরীড়্গা সংক্রানত্ম বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিড়্গার্থী, ভর্তিচ্ছু শিড়্গার্থীরা আবেদন ফি কমানো, পৃথক বিভাগ পরিবর্তন ইউনিট রাখার দাবিতে এ মানববন্ধন, বিড়্গোভ সমাবেশ করে। একই দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর স্বারকলিপি দেয় ছাত্রলীগ, ছাত্রদল, প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা।
শিড়্গক-শিড়্গার্থীদের দাবির প্রেড়্গিতে গত ৩ আগস্ট ভর্তি পরীড়্গা নিয়ে উপ-কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে কলা অনুষদের (কলা, আইন, সামাজিক বিজ্ঞান, চারম্নকলা অনুষদ এবং শিড়্গা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট) পড়্গ থেকে ‘এ’ ইউনিটে বিজ্ঞান ও মানবিক শাখার শিড়্গার্থীদের পরীড়্গা দেওয়ার সুযোগ রাখার সুপারিশ করা হয়। কিন’ উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান দেশের বাহিরে থাকায় কোনো সিদ্ধানত্ম নিতে পারেনি।
এবার শিক্ষার্থীদের ৫৫ টাকা দিয়ে অনলাইনে প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক আবেদন থেকে প্রতি ইউনিটে সর্বোচ্চ ৩২ হাজার শিক্ষার্থীকে চূড়ানত্ম পরীক্ষায় বসার সুযোগ দেওয়া হবে। প্রাথমিক আবেদনে উত্তীর্ণ প্রতি শিক্ষার্থীকে ১২শ টাকা দিয়ে চূড়ানত্ম আবেদন করতে হবে। ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ এই তিনটি ইউনিটে পরীড়্গা অনুষ্ঠিত হবে।