সোনালী ডেস্ক: নাটোরের বড়াইগ্রাম ও বগুড়ার শেরপুরে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
নাটোর ও বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রামে গোসল করতে গিয়ে রুমালী খাতুন (৬) নামে এক শিশু পুকুরের পানিতে ডুবে মারা গেছে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের কচুগাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রুমালী খাতুন কচুগাড়ি গ্রামের রনি আহম্মেদের মেয়ে। সে কচুগাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির শিড়্গার্থী ছিলো। স’ানীয় ইউপি সদস্য এনামুল হক প্রিন্স জানান, মঙ্গলবার বিকালে রুমালী বাড়ির পাশের একটি পুকুরে গোসল করতে যায়। এ সময় সবার অগোচরে সে পুকুরের গভীর পানিতে তলিয়ে যায়। পরে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে তাকে অচেতন অবস’ায় উদ্ধার করে স’ানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলে তিনি তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
বগুড়া প্রতিনিধি জানান, বগুড়ার শেরপুরে পানিতে ডুবে নাবিল হোসেন (৬) নামের এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার শালফা এলাকায় । মৃত শিশু নাবিল হোসেন, শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের শালফা গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে এবং স’ানীয় বর্ণমালা আইডিয়াল কেজি স্কুলের নার্সারির ছাত্র। জানা গেছে, শিশু নাবিল হোসেন মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে স্কুল থেকে বাড়ি আসে। একটু পরে সে তার বাই সাইকেলের টায়ার নিয়ে বাড়ির পাশে খেলা করতে যায়। এর এক পর্যায়ে টায়ারটি পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। সেই টায়ার পুকুর থেকে তুলতে গিয়ে পা পিছলে নাবিল ডোবার পানিতে পড়ে ডুবে যায়। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বিষয়টি জানাজানির পর স’ানীয় লোকজন পুকুর থেকে তাকে উদ্ধার করে শেরপুর উপজেলা স্বাস’্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।