স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে দিন দিন বাড়ছে নারীর প্রতি সহিংসতা ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ। সহিংস কার্যকলাপ বন্ধের দাবি জানিয়েছেন নাগরিক সমাজ ও তর্বণ সংগঠন ফোরাম। গতকাল রোববার বেলা ১১ টায় সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে রাজশাহী তর্বণ সংগঠন ফোরামের আয়োজনে মানবন্ধনে সংগঠন এবং নাগরিক সমাজের নেতৃবৃন্দ উক্ত বক্তব্য তুলে ধরেন।
মানববন্ধনে দাবি তুলে ধরেন বরেন্দ্র শিৰা সংস্কৃতি বৈচিত্র রৰা কেন্দ্রের সভাপতি জাওয়াদ আহমেদ রাফি। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন অপরাধের দিকগুলো তুলে ধরেন। নগরীতে যৌন হয়রানির অপরাধ করায় র্বয়েট শিৰককে মারধর, ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার পথে কলেজ ছাত্র খুন, র্বয়েট ছাত্রীকে অটোরিকশায় লাঞ্চিত, স্কুল থেকে বাড়ি ফিরতে গিয়ে নওদাপাড়ায় ছাত্রীকে অপহরণ, রাজশাহী রেলস্টেশনে বাংলাদেশী বংশদ্ভুধ মার্কিন নাগরিকের হাতব্যাগ ছিনতাই, চিড়িয়াখানা কার্যালয়ে র্বয়েট কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনাসহ নানা ধরনের ঘটনা আমাদেরকে ভিষণভাবে ভাবিয়ে তুলেছে।
মানববন্ধনে তারা ইভটিজিং, নারীর প্রতি সহিংসতাসহ সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধের অংশ হিসেবে শহরের সকল স’ানে দ্র্বত ক্লোজসার্কিট ক্যামেরা স’াপনের দাবি জানান।
মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বারসিক বরেন্দ্র অঞ্চল সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম, সেভ দা নেচারের সভাপতি মিজানুর রহমান, আদিবাসী ছাত্র পরিষদের সহ-সভাপতি সাবিত্রী হেম্রম, নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি নাজমুল ইসলামসহ বিভিন্ন তর্বণ সংগঠনের নেতাগণ। মানববন্ধন শেষে রাজশাহী জেলা প্রশাসককে গণস্বাৰর সম্মলিত দাবিসহ স্মারকলিপি দেয়া। বক্তারা তর্বণদের দাবিগুলো দ্র্বত বাস্তবাযনের দাবি জানান।