স্টাফ রিপোর্টার: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো: শাহরিয়ার আলম এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে সংগঠিত করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন। তিনি বলেন, পাকিসত্মানের অসহ্য অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করে বাঙালি জাতিকে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলার লড়্গ্যে ১৯৭১ সালে দীর্ঘ সংগ্রাম অতিক্রম করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনেন। যিনি এদেশের জন্য এত সংগ্রাম করেছিলেন তিনি কখনও ভাবেননি এদেশের লুকায়িত ঘাতকরা তাঁকে হত্যা করবে। তাদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর একটা আত্মবিশ্বাস ছিলো।
প্রতিমন্ত্রী গতকাল শনিবার শহিদ এএইচএম কামারম্নজ্জামান জেলা পরিষদ মিলনায়তনে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস ও গ্রেনেড হামলা দিবসের আলোচনা সভা, কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন।
প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর রক্ত চিরতরে বাংলাদেশ থেকে মুছে ফেলতে চেয়েছিল। তাই তারা ১৯৭৫ সালে তাঁকে স্বপরিবারে হত্যা করে। বঙ্গবন্ধুর খুনীদের খুঁজে বের করে তাদের বিচারের রায় বাংলার মাটিতে কার্যকর করা হবে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেই তারা থেমে থাকেনি। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। এভাবে ২০ বারের বেশি সময় তাঁকে আক্রমণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের ভাবা উচিত সকল প্রদীপ নিভে গেলেও শেখ হাসিনার প্রদীপ কখনও নিভে যাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করে আগামী প্রজন্মের জন্য বাংলাদেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লড়্গ্যে কাজ করে যাচ্ছেন।
রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদারসহ ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপসি’ত ছিলেন।
পরে প্রতিমন্ত্রী কৃইজ প্রতিযোগিতা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।