স্টাফ রিপোর্টার: বখাটেদের হাতে যৌন হয়রানির শিকার রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রম্নয়েট) শিড়্গার্থী থানায় মামলা করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানায় মামলা করেন তিনি। মামলায় অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।
এর আগে গত ১০ আগস্ট স্ত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় মারধরের শিকার হন রম্নয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিঙ ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের একজন শিড়্গক। নগরীর সাহেববাজার মনিচত্বর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত সোমবার রাতে তিন তরম্নণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
এই ঘটনাটি নিয়ে রাজশাহীতে যখন তুমুল আলোচনা চলছে তখন গত সোমবার নিজে যৌন হয়রানি হয়েছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন রম্নয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী। সেখানেই তুলে ধরেছিলেন যেভাবে যৌন হয়রানির শিকার হন।
রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) উপ-কমিশনার আবু আহাম্মদ আল মামুন বলেন, রম্নয়েটের ওই শিড়্গার্থী যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন ফেসবুকে এমন স্ট্যাটাস দেয়ার পর বিষয়টি তাদের নজরে আসে। এরপর তারা ওই শিড়্গার্থীকে ডেকে পাঠান। গতকাল মঙ্গলবার তাকে নগর ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপরই থানায় একটি মামলা দায়ের করার সিদ্ধানত্ম হয়।
নগরীর বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, মামলায় অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন অটোরিকশা চালক এবং অন্যরা তার পরিচিত কেউ। ওসি জানান, যে সড়কে ঘটনা ঘটেছে বলে বলা হচ্ছে ইতিমধ্যে সে সড়কের পাশে থাকা ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। তারা আসামিদের সনাক্ত করার চেষ্টা করছেন। তাদের সনাক্ত করার সঙ্গে সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।