এফএনএস: স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের অগ্রজ কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান মারা গেছেন। রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস’ায় গতকাল শুক্র-বার বেলা সোয়া ১১টার দিকে মৃত্যু হয় একুশে পদকপ্রাপ্ত এই লেখিকার। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। রিজিয়া রহমানের একমাত্র ছেলে আবদুর রহমান জানান, নানা ধরনের স্বাস’্য জটিলতায় ভুগছিলেন তার মা।
রক্তের সংক্রমণের কারণে ঈদের পরদিন গুর্বতর অসুস’ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস’ায় তার মৃত্যু হয়। ১৯৩৯ সালে কলকাতার ভবানীপুরে রিজিয়া রহ-মানের জন্ম। দেশভাগের পর পরিবারের সঙ্গে তিনি এপার বাংলায় চলে আসেন। ষাটের দশক থেকে গল্প, কবিতা, প্রবন্ধ, শিশুসাহিত্যসহ সাহিত্যের নানা শাখায় বিচরণ করলেও তার মূল পরিচিতি ঔপন্যাসিক হিসেবে।
সহিত্যে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৭৮ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার পান রিজিয়া রহমান। আর সরকার চলতি বছর তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে। অগ্নিস্বাক্ষরা, ঘর ভাঙা ঘর, উত্তর পুর্বষ, রক্তের অক্ষর, বং থেকে বাংলা, অরণ্যের কাছে, শিলায় শিলায় আগুন, অলিখিত উপাখ্যান, ধবল জোৎস্না, সূর্য সবুজ রক্ত, একাল চিরকাল, হে মানব মানবী, হার্বন ফেরেনি, উৎসে ফেরা তার উলেৱখযোগ্য গ্রন’।
একমাত্র ছেলে আবদুর রহমান জানান, উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরে বাসার কাছের মসজিদে গতকাল শুক্রবার আসরের পর রিজিয়া রহমানের জানাজা হবে। পরে মিরপুর কবর-স’ানে ভাইয়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।