সোনালী ডেস্ক: দেশের নয় জেলায় আট বাসসহ মোটরসাইকেল ও অটোরিকশা দুর্ঘটনায় অনত্মত ২৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন। তাদের মধ্যে সিরাজগঞ্জে চারটি বাস একসঙ্গে দুর্ঘটনায় পড়ে, এতে নিহত হন দুইজন। এছাড়া ফেনীতে পিকনিকের বাস গাছে ধাক্কা খেয়ে সাতজন, ফরিদপুরে দুই বাসের সংঘর্ষে এক চালকসহ তিনজন ও অন্য একটি দুর্ঘটনায় আরও একজন, কিশোরগঞ্জে ট্রাক-অটো সংঘর্ষে তিনজন, ময়মনসিংহে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে দুইজন, গোপালগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় একজন, চট্টগ্রামে একজন, টাঙ্গাইলে একজন ও বারিশালে একজনের প্রাণহানি হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেলের মধ্যে এসব দুর্ঘটনা ঘটে।
নাটোরের বড়াইগ্রাম ও সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ জন নিহত ও শিশুসহ ২৬ জন আহত হয়েছেন।
নাটোর ও বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার হাটিকুমরুল মহাসড়কের সুতির মোড় এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনে থাকা অন্য গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনায় আরিফ হোসেন (১৮) নামের এক ছাত্র মারা যায়। এ সময় মোটোর সাইকেলের পিছনে বসা স্কুলছাত্রী উপমা (১৬) আহত হয়। বুধবার রাত ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বনপাড়া হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান জানান, বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের আগ্রান সুতির পাড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে । মোটরসাইকেলটির অবস’া দেখে ধারণা করা হচ্ছে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনে থাকা কোন গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা দিয়েছে। ঘটনাস’লে আরিফ মারা যায়। আহত উপমাকে স’ানীয়রা উদ্ধার করে বনপাড়া আমেনা হাসপাতালে ভর্তি করে। আরিফ উপজেলার আহাম্মেদপুর কৃষি ও কারিগরি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক ১ম বর্ষের ছাত্র ও নওপাড়া গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে। উপমা বনপাড়া পাটোয়ারী এডুকেয়ার কোয়ালিটি ইনস্টিটিউটের নবম শ্রেণির ছাত্রী ও দিয়ারপাড়া এলাকার কামরম্নল ইসলাম আলফুর মেয়ে।
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড়ে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলায় এক সঙ্গে চারটি বাস দুর্ঘটনায় পড়ে ২ জন নিহত ও অনত্মত ২৫ জন আহত হয়েছেন। উপজেলার কোনাবাড়ি এলাকায় বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় থানার এসআই জহুরুল ইসলাম জানান। হতাহতদের নাম-পরিচয় তাৎড়্গণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।
এসআই বলেন, উত্তরাঞ্চলগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে ঢাকাগামী ফাইভ স্টার পরিবহনের একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় হানিফ পরিবহনের পেছনে থাকা ডিপজল ও এনা পরিবহনের দুইটি বাস দুর্ঘটনা কবলিত বাস দুটিকে ধাক্কা দিলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনা স’লে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কাজ চলছে বলে জানান তিনি।
চট্টগ্রাম: হাটহাজারীর থানার ১১ মাইল এলাকায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আবু আলম (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে থানার পশ্চিম মেখলের সানাউলস্নাহ খন্ডকার বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবু আলম স’ানীয় লালমিয়ার ছেলে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, গুরম্নতর আহত অবস’ায় ওই বৃদ্ধকে চমেকে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃতে ঘোষণা করেন।
ফরিদপুর: ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় দুই বাসের সংঘর্ষে এক বাসের চালকসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনত্মত ৩১ জন। উপজেলার নওয়াপাড়া এলাকায় গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে ভাঙা হাইওয়ে থানার ওসি আতাউর রহমান জানান। তিনি বলেন, ফরিদপুর থেকে বরিশালের টেকের হাটগামী একটি লোকাল বাসের সঙ্গে বরিশাল থেকে রংপুরগামী তুহিন পরিবহনের একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস’লে এক বাসের চালক ও এক নারীর মৃত্যু হয় এবং হাসপাতালে নেওয়ার পর আরও একজন মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার বলে জানান ওসি। এ দুর্ঘটনায় আরও অনত্মত ৩১ জন আহত হয়েছেন বলে জানালেও তাদের নাম-ধাম বলতে পারেননি এ পুলিশ কর্মকর্তা।
এদিকে, ফরিদপুরে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আবদুস ছাত্তার মোলস্না (৩০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক দেলোয়ার তালুকদার আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাবুরচর-চন্দ্রপাড়া আঞ্চলিক সড়কের কাচারীডাঙ্গী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত আবদুস ছাত্তার মোলস্না উপজেলার ঢেউখালী ইউনিয়নের চরকুমুরিয়া গ্রামের গফুর মোলস্নার ছেলে। আহত মোটরসাইকেল চালক দেলোয়ার তালুকদার একই ইউনিয়নের চরব্রাহ্মনদী গ্রামের আমজাদ তালুকদারের ছেলে। সদরপুর থানার ওসি সৈয়দ লুৎফর রহমান জানান, আবদুস ছাত্তারের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদনেত্মর জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বজনেরা মামলার প্রস’তি নিচ্ছেন।
ফেনী: ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী একটি পিকনিকের বাস ফেনীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছে ধাক্কা লেগে সাতজনের প্রাণ গেছে; এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনত্মত ২১ জন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার লেমুয়া ইউনিয়নে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে ফেনীর মহিপাল হাইওয়ে থানার ওসি মো. শাহজাহান খান জানান। নিহতদের মধ্যে দুই জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন ফেনীর ছাগলনাইয়ার শাহাদাত ও ঢাকার বিক্রমপুরের সুজন মিয়া।
ওসি শাহজাহান বলেন, ঢাকার মিরপুর থেকে ‘প্রাইম পস্নাস’ পরিবহনের পিকনিকের বাসটি কক্সবাজারে যাচ্ছিল। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি মহাসড়কে পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস’লেই ছয়জনের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে পাঠায় বলে জানান তিনি। পরে হাসপাতালে একজনের আরও একজনের মৃত্যু হয় বলে ফেনী হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের নায়েক মাইদুল হক জানান। ফেনীর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) আবু তাহের পাটোয়ারী বলেন, আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে দশজনের শারীরিক অবস’া আশঙ্কাজনক। পিকনিকের আয়োজক মিরপুরের পাপ্পু বলেন, ঈদের ছুটি উপলক্ষে মীরপুরের বাসিন্দারা স’ানীয় ভাবে কক্সবাজার ও বান্দরবান যাওয়ার আয়োজন করে। সে অনুযায়ী চাঁদা সংগ্রহ শেষে গত বুধবার রাত ২টার দিকে মিরপুর থেকে দুইটি বাস কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। তার মধ্যে একটি বাস ফেনীতে দুর্ঘটনায় পড়ে; অন্য বাসটি কক্সবাজারে পৌঁছায় বলে জানান তিনি। আহতদের মধ্যে রম্নমা আক্তার নামে এক যাত্রী বলেন, ভোরে যাত্রা বিরতির সময় কোন একটি রেসেত্মারাঁয় যাত্রীরা সবাই নাসত্মা করে। পরে সবাই বাসে উঠে ঘুমিয়ে পড়ার পর বাসটি দুর্ঘটনায় পড়ে।
গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় মোটর সাইকেল ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন; এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তার স্ত্রী। কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আমিনুর রহমান জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ২টার দিকে উপজেলার গোপালপুর এলাকার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত তুহিন মোলস্না (৪৫) গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামের আছর আলী মোলস্নার ছেলে। তুহিনের স্ত্রী সাখি বেগমকে (৪০) কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস’্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পরিদর্শক আমিনুর বলেন, তুহিন তার স্ত্রীকে নিয়ে মোটর সাইকেলে করে গোপালগঞ্জ থেকে কাশিয়ানীতে যাচ্ছিলেন। পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মাইক্রো বাসের সঙ্গে মোটর সাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস’লেই তুহিনের মৃত্যু হয়।
কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে মালবাহী ট্রাকের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন; এ ঘটনায় আাহত হয়েছেন আরও অনত্মত চারজন। কটিয়াদি হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক নাসির উদ্দিন মজুমদার জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে উপজেলার আচমিতা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন অটোরিকশার চালক করিমগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর গ্রামের জাহিদুল ইসলাম (৩০) ও ইটনা উপজেলার জয়সিদ্দি গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন (২২) ও ওমর ফারম্নক (২২)। আহত ইটনা উপজেলার জয়সিদ্দি গ্রামের আবদুল কাদির (৩০), পরিমল (২২), গিয়াস উদ্দিন (৪৫) ও সিরাজ উলস্নাহ (৫০)।
পরিদর্শক নাসির বলেন, করিমগঞ্জের চামড়াবন্দর থেকে ভৈরবগামী অটোরিকশাটির সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে অটোরিকশার চালকসহ সব যাত্রী গুরম্নতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে বাজিতপুর জহুরম্নল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান নাসির।
ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের ফুলপুরে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে শিশুসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার টার দিকে উপজেলার ইমাদপুরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে বলে ফুলপুর থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী জানান। নিহত সিরাজ উদ্দিন (৪৫) শেরপুরের বাসিন্দা। শিশু জায়েদের (৬) পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।
ওসি ইমারত বলেন, ঢাকাগামী সোনার বাংলা পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা অটোরিকশার সংঘর্ষ হলে ঘটনাস’লেই এক শিশু মারা যায়। পরে আহতদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস’ায় সিরাজ উদ্দিন নামে আরও একজনের মৃত্যু হয় বলে জানান ওসি ইমারত।
টাঙ্গাইল: সখীপুর উপজেলায় পিকআপ ভ্যানচাপায় ইসতিয়াক আহমদ (১৭) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সখীপুর-গোড়াই সড়কের বোয়ালী উত্তরপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ইসতিয়াক সখীপুর পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের শাকিল আজাদের ছেলে। সে সরকারি মুজিব কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল। সখীপুর থানার ওসি অমির হোসেন জানায়, সকালে মোটরসাইকেলে করে সখীপুর থেকে নলুয়া যাচ্ছিল ইসতিয়াক। পথে বোয়ালী উত্তরপাড়ায় এলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি পিকআপ ভ্যান মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস’লেই তার মৃত্যু হয়।
বরিশাল: বাবুগঞ্জ উপজেলায় বাসচাপায় অজ্ঞাতপরিচয় মোটরসাইকেলের (৩০) এক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরম্নতর আহত হয়েছেন অপর (৩২) এক আরোহী। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার নতুনহাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাবুগঞ্জ থানার ওসি দিবাকর চন্দ্র দাস জানান, দুপুরে উপজেলার নতুনহাট এলাকায় একটি বাস মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে মোটরসাইকেলের দুই আরোহী গুরম্নতর আহত হন।
পরে স’ানীয়রা তাদের উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে নিলে জরম্নরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক আবুল হাসানাত রাসেল এক আরোহীকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরজনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ময়নাতদনেত্মর জন্য লাশ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।