স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর কর্ণহার থানার দারম্নসা দীঘিপাড়া এলাকায় এক বাড়িতে দুঃসাহসিক চুরি সংগঠিত হয়েছে। সেখান থেকে চোরেরা আড়াই লাখ টাকা নিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ সন্দেহভাজন একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তার নাম বরজাহান ওরফে বরজু (৩০)। তিনি একই এলাকার আব্দুল মজিদের।
কর্ণহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম বাদশা জানান, দারম্নসা দীঘিপাড়া এলাকার পলাশ বৃহস্পতিবার হাটে গরম্ন বিক্রি করে ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা বাড়িতে নিয়ে গিয়ে রাখে। গভীর রাতে চোরেরা ছাদ দিয়ে তার ঘরে প্রবেশ করে। এরপর ঘরে থাকা ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়ে দরজা দিয়ে বেরিয়ে যায়। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে। ওসি আরও বলেন, পলাশের ঘরের চতুর দিকে ইট গাঁথা। তবে ঘরটি ছাদ বিহীন এবং দরজা নেই উম্মুক্ত। তিনি বলেন, উক্ত চুরির ঘটনায় গতকাল শুক্রবার সন্দেহভাজন ৪ জনকে আটক করা হলেও ৩ জন নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে এবং বরজাহান ওরফে বরজুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে চুরি হওয়া টাকা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।