স্টাফ রিপোর্টার: কারও ওপর নির্ভরশীল নয়, ডেঙ্গু জ্বরের জীবাণুর বাহক এডিস মশার বিরম্নদ্ধে প্রত্যেকটি পরিবারকেই লড়াইয়ের আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা। তিনি বলেছেন, সবাই নিজ নিজ জায়গা থেকে এডিসের আবাস ধ্বংস করলে ডেঙ্গু রোগ ছড়াবে না।
গতকাল শুক্রবার সকালে রাজশাহী মহানগরীর পাচানিমাঠ এলাকায় ডেঙ্গু সচেতনতায় প্রচারপত্র বিতরণকালে সাধারণ মানুষের উদ্দেশে এ কথা বলেন। রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি এ কর্মসূচির আয়োজন করে। কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা ও রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।
তিনি নগরীর শাহমখদুম কলেজের সামনে থেকে প্রচারপত্র বিলি শুরম্ন করেন। এরপর পশ্চিম দিকে এগুতো থাকেন। পাচানিমাঠসহ আশপাশের এলাকার অনত্মত ৫০টি বাড়িতে গিয়ে তিনি বাসিন্দাদের ডেঙ্গু রোগ নিয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।
এ সময় ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, রাজশাহীতেও এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে। এখন ঘরে বসে থাকলে চলবে না। কারও দিকে তাকিয়ে থাকলেও হবে না। ডেঙ্গু রোগ ছড়িয়ে পড়ার আগেই আত্মনির্ভরশীল হয়ে প্রত্যেকটি পরিবারকে এডিসের বিরম্নদ্ধে লড়াই করতে হবে। নিজ বাড়ি, বাড়ির চারপাশ আগাছামুক্ত ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। কোথাও যেন পানি জমে না থাকে সেটা দেখতে হবে।
তিনি বলেন, আজ (গতকাল) ওয়ার্কার্স পার্টির পড়্গ থেকে পুরো মহানগরীতে বাড়ি বাড়ি প্রচারপত্র পৌঁছে দেওয়া হলো। প্রত্যেকটি পরিবার প্রচারপত্রের নির্দেশিকা মানলে রাজশাহীতে ডেঙ্গু ছড়াবে না। তাই প্রচারপত্রের নির্দেশিকা মেনে এডিসের বংশবিসত্মারের স্থানগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানান তিনি।
প্রচারপত্র বিলিকালে তার সঙ্গে ছিলেন মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ প্রামাণিক দেবু, সম্পাদকম-লীর সদস্য এনত্মাজুল হক বাবু, সাদরম্নল ইসলাম,আবুল কালাম আজাদ, ফেরদৌস জামিল টুটুল, সদস্য সিরাজুর রহমান খান, শাহিনুর বেগম, নগর যুবমৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালেক বকুল, নগরীর ২৪ নম্বর ওয়ার্ড ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক মইদুল ইসলাম প্রমুখ।