পাবনা প্রতিনিধি: পাবনা পৌর এলাকার তিনটি স’ানে ডেঙ্গুজ্বরের জীবাণুবাহক এডিস মশার লার্ভার সন্ধান পেয়েছে স্বাস’্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মেহেদী ইকবাল ।
সংবাদ সম্মেলনে সিভিল সার্জন জানান, জেলা সিভিল সার্জন অফিসের কীটতত্ত্ববিদ হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি দল জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে ৬ আগস্ট পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে জেলার বিভিন্ন স’ানে পরীৰা চালিয়ে জেলার কোথাও ডেঙ্গু জীবাণুবাহী এডিস মশার অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। গত ৭ আগস্ট পৌর এলাকার তিরিশটি পয়েন্টের পানি সংগ্রহ করে তিনটি স’ানে এডিস মশার লার্ভার সন্ধান পাওয়া যায়। স্বাস’্য বিভাগের বিশেষ টিম শহরের বাস টার্মিনাল, বিআরটিসি বাস ডিপোতে পরিত্যক্ত টায়ারে জমে থাকা পানিতে এবং আব্দুল হামিদ রোডের একটি নির্মাণাধীন ভবনে এডিস মশার লার্ভার সন্ধান পেয়েছে।
সিভিল সার্জন আরও জানান, যেহেতু তিনটি পৃথক স’ানে লার্ভা পাওয়া গেছে, সেহেতু জেলার আরও অনেক স’ানেই এডিস মশা রয়েছে বলে ধারণা করা যায়। গত কয়েক দিন ধরে বৃষ্টি বৃদ্ধি পাওয়ায়, এডিস মশার বিস্তারে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। নিজ নিজ বাড়ির আশেপাশের মশার প্রজনন ৰেত্র ধ্বংস করতে জনগণকে উদ্যোগী হবার আহবান জানান তিনি।
এদিকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে আবারো৪ বাড়ছে ডেঙ্গুরোগীর সংখ্যা। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. রঞ্জন কুমার দত্ত জানান, জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে পাবনা জেনারেল হানপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর একই হাসপাতালে বর্তমানে ৩৭ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি আছেন। এই নিয়ে গত ১৮ দিনে ১ শ ৫৩ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।