স্টাফ রিপোর্টার: মহানগরীতে ১৪টি স্থানে জমাকৃত বৃষ্টির পানিতে ডেঙ্গুর লার্ভার উপস্থিতি মিলেছে। গতকাল বুধবার সংগ্রহকৃত কীট পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
এরআগে প্রাথমিকভাবে তারা সাংবাদিকবৃন্দকে জানিয়েছিলেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষের বাসভবন ও ফাল্গুনি ছাত্রীনিবাসের সামনে প্লাস্টিকের কোটায় জমাকৃত বিষ্টির পানিতে মিলেছে এডিস মশার লার্ভা।
এছাড়াও নগরের বিভিন্ন এলাকার বাড়ির ফুলের টব, পরিত্যক্ত প্লাস্টিক পাত্রে ও দোকানের ব্যাটারির সেল ও টায়ারে এবং রাসত্মার ধারে পাইপে জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে মিলেছে এডিস মশার ব্যাপক লার্ভার উপস্থিতি মিলেছে।
বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক আরো জানান, তিনি নিজ উদ্যোগে কীটতত্ববিদদের তিন সদস্যর একটি কমিটি গঠন করেন। টিমটি গত ২ আগস্ট থেকে ৫দিন বিভিন্ন ওয়ার্ডের (মাঠ পর্যায়) ৮০০ বাড়িসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন। কমিটির প্রধান হচ্ছেন সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের জেলা কীটতত্ববিদ তায়েজুল ইসলাম। কমিটির অপর দুই সদস্য হচ্ছেন রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয়ের কীটতত্বীয় কারিগর (টেকনিশিয়ান) আব্দুল বারী ও রাজশাহী সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের কীটতত্বীয় কারিগর উম্মে হাবিবা।