স্টাফ রিপোর্টার: নগরীর হেতমখাঁ এলাকায় চাঞ্চল্যকর শিড়্গার্থী হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন বখাটে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ বলছে, হত্যার ঘটনায় গুরম্নত্বপূর্ণ কিছু তথ্য তারা হাতে পেয়েছেন। এ ব্যাপারে আটককৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।
পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, এটি পরিকল্পিত একটি হত্যার ঘটনা। নিহত শিড়্গার্থী রাজশাহী সিটি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ফারদিন ইসনা আসারিয়া ওরফে রাব্বি। নিহতের বোন মনা বলেন, চার বোনের আদরের ছোট ভাই রাব্বি। তার সঙ্গে বিবাদ আছে বলে তাদের জানা নেই। বাড়ি যাওয়ার আগের দিন মোবাইল করে সে তার বোনকে জানায় ভোরের ট্রেনে সে বাড়ি ফিরবে। পরের দিন ভোরে রাব্বির ফোন থেকে তারা জানতে পারেন তাদের আদরের ছোট ভাই আর নেই।
এদিকে, নিহত রাব্বি’র সহপাঠীরা জানান, রাব্বি একজন মেধাবী ছাত্র ছিল। কলেজে তার সঙ্গে কারো বিবাদ আছে বলে তাদের জানা নেই। তবে সে যা বলতো সবার মুখের ওপরেই বলত। উলেস্নখ্য, গত মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে সে মেস থেকে বেরিয়ে ট্রেন ধরার জন্য যাওয়ার পথে নগরীর হেতমখাঁ এলাকায় দূর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে হত্যা করে রাসত্মায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। রাব্বি হেতমখাঁ এলাকায় ঘটনাস্থল থেকে সামান্য কিছু দূরে একটি মেসে থাকতো। সে দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর থানার মোমিনপুর এলাকার মৃত মোজফ্‌ফর হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।
এ ব্যাপারে আরএমপি’র মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার গোলাম রম্নহুল কুদ্দুস বলেন, সন্দেহভাজন এক বখাটে যুবককে পুলিশ আটক করেছে। তবে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পুলিশ তদনত্ম অব্যাহত রেখেছে।