বিশেষ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুরে আলোচিত দৈনিক সমকাল পত্রিকার সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার বিচার কার্যক্রম শুরম্ন হতে যাচ্ছে রাজশাহীর দ্রম্নত বিচার ট্রাইব্যুনালে। আগামী সোমবার ৫ সেপ্টেম্বর আসামিদের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে শুরম্ন হবে মামলার বিচারিক কার্যক্রম।
সংশিস্নষ্ট সূত্র বলছে, ইতিমধ্যেই সিরাজগঞ্জ দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন মামলাটি বিচারের জন্য দ্রম্নত বিচার ট্রাইব্যুনালে প্রেরণ করা হয়েছে। ট্রাইব্যুনালের পিপি এনত্মাজুল হক বাবু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এই মামলার প্রধান আসামি শাহাজাদপুর পৌরসভার মেয়র হালিমুল হক মিরম্ন। মামলার বাদী নিহত সাংবাদিক শিমুলের স্ত্রী নুরম্নন্নাহারের দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২ ফেব্রম্নয়ারি দুপুর অনুমান ১টার সময় যুবলীগনেতা বিজয় মাহমুদ মামুনকে শাহাজাদপুর সাব-রেজিস্ট্রী অফিসের সামনে থেকে উঠিয়ে নিয়ে আসামি মেয়র মিরম্নর বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে মেয়র মিরম্নর ভাই আসামি মিন্টুসহ অন্যান্যরা মামুনকে মারপিট করে হাত-পা ভেঙে দেয়। এর প্রতিবাদে কান্দাপাড়াসহ আশ পাশের গ্রামের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগসহ এলাকার লোকজন বিকাল অনুমান সাড়ে ৩টার দিকে শাহাজাদপুর পৌর এলাকায় প্রতিবাদ মিছিল বের করে আসামি মেয়র মিরম্নর বাড়ির পূর্ব পাশে পৌঁছালে মিরম্ন ও তার ভাইসহ ২৫/৩০ জন আসামি পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক বোমা, ককটেল, রাম দা, হাসুয়া ছুরি, পিসত্মল, শর্টগান ইত্যাদি অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিবাদকারীদের হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। এসময় সাংবাদিক শিমুল আসামিদের হামলা ও গুলিবর্ষণের ছবি তুলতে থাকলে আসামি মিরম্ন শর্টগান দিয়ে শিমুলকে গুলি করলে গুলি তার ডন চোখে লেগে মাথার মগজে গিয়ে আটকে যায়। এসময় শিমুল মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অন্যান্য আসামিরা তাকে এলোপাতাড়ী মারপিট করে। আসামিদের হামলায় মিছিলকারী আরও অনেকে আহত হয়। গুরম্নতর আহত সাংবাদিক শিমুলকে প্রথমে পোতাজিয়া হাসপাতালে সেখান থেকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিয়ে যাওয়ার সময় ৩ ফেব্রম্নয়ারি দুপুর অনুমান ১টার দিকে সিরাজগঞ্জের নলকা ব্রিজের পূর্ব পাশে পৌঁছালে শিমুল মারা যান। এ ঘটনায় শিমুলের স্ত্রী নুরম্নন্নাহার বাদী হয়ে শাহাজাদপুর থানায় ১৮ জনকে আসামি এজাহার দায়ের করেন। থানার মামলা নং-৪, তারিখ-৩/২/২০১৭ ইং। পরবর্তীতে পুলিশ তদনত্ম শেষে ৩৮ জনের বিরম্নদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।