স্টাফ রিপোর্টার: কৃষকের দাবী নিয়ে আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। কৃষক সমিতিকে শক্তিশালী করতে হবে। সাংগঠনিক সমস্যা ও বিকাশের বিষয় নিয়ে জাতীয় কৃষক সমিতির বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে জেলা ও মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয় মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পিয়ার্বল।
সভায় কৃষকের দাবীর ভিত্তিতে সংগ্রাম গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন জাতীয় কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় ত্রাণ ও স্বেচ্ছাসেবক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, কেন্দ্রীয় ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য ও মহানগর সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সদস্য ইব্রাহিম খলিল, কেন্দ্রীয় সদস্য রবিন্দ্রনাথ সরেন, কৃষক সমিতির রাজশাহী জেলা সহ-সভাপতি ফরজ আলী, পাবনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ওহিদুর রহমান, নাটোর জেলা সাধারণ সম্পাদব আব্দুল করিম, কৃষক নেতা আব্দুল জলিল প্রমুখ।
প্রতিনিধি সভায় কৃষক নেতারা বলেন, কৃষকদের আন্দোলন-সংগ্রামকে আরও বেগবান করতে হবে। কষি পণ্যের নায্যমূল্য নিশ্চিত করতে কৃষক আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই। কৃষকরা আজ অনেক সমস্যায় জর্জরিত। তাই তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। সরকার যে কৃষিনীতি নিয়ে কৃষকের পাশে আছে তা অত্যন্ত নাজুক। তাই এই কৃষকনীতি পরিবর্তন করে কৃষকের পৰের কৃষকনীতি বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। ভূমিসংস্কার, ভূমিনীতি আজ ধ্বংসের মুখে। আমচাষী, পেয়ারা চাষী, মৎস্যচাষীদের রৰা করতে হলে কৃষককে ভর্তুকি প্রদান করতে হবে। উত্তরবঙ্গের কৃষকরা যেন তাদের উৎপাদিত পণ্য চট্টগ্রাম বন্দরসহ রাজধানী পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারে তাই বঙ্গবন্ধু সেতুসহ সকল স’ানে রেল যোগাযোগ নিশ্চিত করতে হবে।
প্রতিনিধি সভা পরিচালনা করেন জাতীয় কৃষক সমিতির রাজশাহী জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আশরাফুল হক তোতা।