সোনালী ডেস্ক: দেশের প্রথম ‘মিস্টার ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হিসেবে নির্বাচিত হলেন চট্টগ্রামের মেহেদী হাসান ফাহিম। প্রায় পাঁচ হাজার প্রতিযোগীকে টপকে তিনি এটি অর্জন করেন।
গত বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সিটির রাজদর্শন হলে আয়োজন করা হয় ‘সজীব গ্র্বপ মিস্টার ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাত ১২টায় বিজয়ী হিসেবে ফাহিমের নাম ঘোষণা করেছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান এক্সপোজার।
এই প্রতিযোগিতায় যৌথভাবে প্রথম রানারআপ হয়েছেন মাহাদী ও হানিফ। যৌথভাবে দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন আহসান রাজ ও হামজা খান চৌধুরী।
বিজয়ী হয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির ছেলে মেহেদী হাসান ফাহিম। তিনি বলেন, আগে কখনও কোনও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করিনি। পড়ালেখার পাশাপাশি ইমপোর্ট ব্যবসা করতাম। মডেলিংয়ের প্রতিও ঝোঁক ছিল আমার। আমি মনে করি আজকে থেকে আমার আসল যাত্রা শুর্ব হলো। বিশ্বের ৭২টি দেশের প্রতিযোগীদের সঙ্গে লড়াই করতে হবে আমাকে। অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, যেন দেশের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি।
আয়োজক প্রতিষ্ঠান এক্সপোজার-এর প্রধান স্বপন চৌধুরী বলেন, পাঁচ হাজার থেকে সেরা ১০ জন বাছাই করে তাদের মধ্য থেকে বিভিন্ন গ্র্বমিং শেষে সেরা একজনকে নির্বাচিত করেছেন বিচারকরা। ফাহিমকে জানাই অভিনন্দন।
স্বপন জানান, চলতি বছর এখন পর্যন্ত ৭২টি দেশের প্রতিনিধি চূড়ান্ত হয়েছে মিস্টার ওয়ার্ল্ড-এর এবারের আয়োজনে। প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৩ আগস্ট, ফিলিপাইনের ম্যানিলা শহরে। সেখানে অংশ নিতে বাংলাদেশের প্রতিযোগী হিসেবে ফাহিম ৬ আগস্ট ঢাকা ত্যাগ করবেন।
আয়োজকদের কাছ থেকে সেরার ক্রেস্ট নিচ্ছেন ফাহিম মিস্টার ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন বুথ্‌থান মার্শাল আর্টসের জনক, বজ্রপ্রাণ ধ্যান-সাধনা পদ্ধতির প্রতিষ্ঠাতা ড. ম্যাক ইউরি, প্রখ্যাত গেরিলা যোদ্ধা, ‘ওরা ১১ জন’ চলচ্চিত্র খ্যাত নায়ক কামর্বল আলম খান খসর্ব।
এছাড়াও বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন মডেল অভিনেতা সানজু জন, মডেল প্রিন্স এবং ওয়াল মার্ট’র ফ্যাশন ডিজাইনার আবদুলৱাহ্‌ আল মামুন। গ্র্যান্ড ফিনালের উপস’াপনায় ছিলেন সায়েম ও শ্রাবণ্য তৌহিদা।