স্টাফ রিপোর্টার : গোদাগাড়ীতে দুই সনত্মানের জননী গৃহবধূ পলিকে মারপিট ও কীটনাশক খাইয়ে হত্যার অভিযোগ এনে দায়ের করা মামলাটি এজাহার হিসাবে গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহীর আমলী ৫ নং আদালতে বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন নিহত পলির ভাই দারম্নসা বেজোড়া গ্রামের স্বপন আলী। এই মামলায় নিহতের স্বামী গোদাগাড়ী থানার ভাগাইল গ্রামের মুক্তারসহ ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। আদালতের বিচারক রাজশাহীর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তালুকদার বাদির অভিযোগটি এজাহার হিসাবে গ্রহণের জন্য গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন । আদালত মামলার পরবর্তী দিন ধার্য্য করেণ আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর।
মামলার অভিযোগে জানা যায় ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল দুপুরে হাস, মুরগিকে খাবার জন্য উঠানে ভাত ছিটানোকে কেন্দ্র করে পলির শাশুড়ি পলিকে গালিগালাজ করতে থাকে এক পর্যায়ে আসামিরা তাকে মারপিট করলে পলি পানি খেতে চাই এ সময় আসামিরা তার মুখে কীটনাশক ঢেলে দেয়। গুরম্নতর অসুস্থ পলিকে আসামিরা দারম্নশা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙে সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেলে নিয়ে আসে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩০ এপ্রিল রাত ১১ টা ৫০ মিনিটে পলির মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পূবে পলি তার ভাইকে ঘটনা বলে যায়। বাদী পড়্গে মামলাটি দায়ের করেন অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম।