এফএনএস: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে রোহিঙ্গা তর্বণীসহ তিনজনকে আটক হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে কাগজপত্র নিয়ে পাসপোর্ট করতে এলে দুই দালালসহ ওই তর্বণীকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
আটক রোহিঙ্গা তর্বণীর নাম মরিজান (১৭)। সে মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের জাকের মিয়ার মেয়ে। কক্সবাজার কুতুপালংয়ের ‘ই’ বৱকে থাকে মরিজান। তার সঙ্গে থাকা দুই দালাল হলেন, জেলার কসবা উপজেলার নেমতাবাদ এলাকার মোখলেছ মুন্সী ও আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ গ্রামের লিপি বেগম।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক জামাল হোসেন জানান, ওই রোহিঙ্গা তর্বণীর পাসপোর্ট করার জন্য লিপি বেগম নামে এক নারী মোখলেছ মুন্সীকে সঙ্গে নিয়ে পাসপোর্ট অফিসে আসেন। এ সময় তরূণীকে মোখলেছ মুন্সীর মেয়ে তানজিনা আক্তার সাজিয়ে তার জন্মসনদ ও জাতীয়তার সদন নিয়ে আসেন।
যাচাই-বাছাইয়ের সময় রোহিঙ্গা তর্বণীর কথাবার্তা সন্দেহজনক হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন জানান, পাসপোর্ট অফিসের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা তাদের আটক করে নিয়ে আসি। এ ব্যাপারে তাদের বির্বদ্ধে আইনগত ব্যবস’া নেওয়া হবে।