বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৯-২০ শিৰাবর্ষের ভর্তি ফরমের দাম কমানোর দাবি জানিয়েছেন শিৰার্থীরা। গতকাল রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন’াগারের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশ থেকে তারা এ দাবি জানান।
‘শিৰাবাণিজ্য বিরোধী শিৰার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে এ বিৰোভ মিছিল ও ছাত্রসমাবেশের আয়োজন করা হয়। এর আগে একটি বিৰোভ মিছিল বের করে ক্যাম্পাসের গুর্বত্বপূর্ণ সড়ক প্রদৰিণ শেষে গ্রন’াগারের সামনে সমাবেশে মিলিত হয়।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘প্রতি ইউনিটে যে টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে তা রাষ্ট্রের কতজন ব্যয়ভার বহন করতে সৰম? দেশের বেশিরভাগ এলাকা এখন বন্যাকবলিত। এই বন্যাকবলিত এলাকার সেই ছেলে-মেয়েগুলোর বাবার পৰে এত টাকা দেয়া সম্ভব নয়। এছাড়াও একজন শিৰার্থী একটি ইউনিট ছাড়া একাধিক ইউনিটে ফর্ম তুলতে পারবে না সেটাও অযৌক্তিক নিয়ম। তাই ভর্তি ফরমে যে অযৌক্তিক উচ্চ মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে তা কমিয়ে আনা হোক। শিৰার্থী বান্ধব মূল্য নির্ধারণ করা হোক এটাই আমাদের প্রত্যাশা।
তারা আরও বলেন, ‘শিৰা সবার জন্য না হয়ে উচ্চ শ্রেণির জন্য হয়ে যাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে যে ইট-পাথরের উন্নয়ন হচ্ছে তাতে অনেক টাকা বাজেট করা হচ্ছে। কিন’ কেন শিৰার্থী ভর্তির জন্য কোন বাজেট করা হবে না?
বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি বিভাগের শিৰার্থী রঞ্জু হাসানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন ইসলামের ইতিহাস বিভাগের শিৰার্থী মাহমুদ সাকি, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের শিৰার্থী মাসুদ রানা, আরেফিন মেহেদি হাসান, দর্শণ বিভাগের শিৰার্থী আশরাফুল আলম সম্রাট, রসায়ন বিভাগের শিৰার্থী সাকিল হোসেন প্রমুখ। এছাড়াও সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিৰার্থী অংশগ্রহণ করেন।