এফএনএস: সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতির কোনো উন্নতির খবর পাওয়া যায়নি। সরকারের হালানাগাদ তথ্যেও মশাবাহিত এই রোগে আক্রানেত্মর সংখ্যা বাড়ার চিত্র পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন ও কন্ট্রোল রম্নমের তথ্য অনুযায়ী, গত শুক্রবার সকাল ৮ থেকে গতকাল শনিবার সকাল ৮ পর্যনত্ম ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু আক্রানেত্মর সংখ্যা ৬৮৩ জন।
এই সংখ্যা গত এক মাসের (২৬ জুন-২৭ জুলাই) মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে সবচেয়ে বেশি ৬৬৩ জন রোগী ভর্তি হয়েছিল গত ২৪ জুলাই। অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্য বলছে, বছরের শুরম্নর দিন থেকে গতকাল শনিবার পর্যনত্ম হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ১০ হাজার ৫২৮ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে থেকে ৭ হাজার ৮৪৯ জন চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফিরেছেন। গতকাল শনিবার থেকে পূববর্তী ২৪ ঘণ্টায় শুধু ঢাকার সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোতেই ভর্তি হয়েছে ৬৪৩ জন ডেঙ্গু রোগী।
সবচেয়ে বেশি ২৩৩ জন ভর্তি হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এছাড়া রাজধানীর বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে আরও ১১৪ জন ডেঙ্গু রোগী গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ডেঙ্গুতে আক্রানত্ম হয়ে অনত্মত ২০ জনের মৃত্যুর খবর গণমাধ্যমে এলেও সরকারি খাতায় মৃতের সংখ্যা আগের মতো আটজনই রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের অনেকের ধারণা, আক্রানত্ম সবার তথ্য সরকারের নজরদারিতে না আসায় আক্রানেত্মর প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি।
এ বছর চলতি মাসে ঢাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ ব্যাপক আকার নিয়েছে। ডেঙ্গুর বিসত্মার বাড়তে থাকায় রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে রোগীদের স্থান সঙ্কুলান হচ্ছে না। ঢাকার সরকারি হাসপাতালগুলোতে নির্ধারিত শয্যার বাইরেও মেঝেতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে রোগীদের। অনেকে রোগী নিয়ে এ হাসপাতাল ও হাসপাতাল ছুটে বেড়াচ্ছেন।
াস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা মেডিকেলে ২৩৩ জনের বাইরে মিটফোর্ডে ৭, শিশু হাসপাতালে ৯, সোহরাওয়ার্দীতে ৩৬, হলি ফ্যামিলিতে ২২, বারডেমে ১২, পুলিশ হাসপাতালে ২৪, মুগদা মেডিকেলে ৪৯, বিজিবি হাসপাতালে ১৩, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ৩২ জন ডেঙ্গু রোগী গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছে। এছাড়া ঢাকার বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে আরও ২০৬ জন ভর্তি হয়েছে বলে জানিয়েছে অধিদপ্তর। রাজধানীর বাইরে ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ৮ জন, চট্টগ্রামে ২৭ এবং সিলেট বিভাগে ৫ জন ডেঙ্গুতে আক্রানত্ম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর আগে গত শুক্রবার সকাল পর্যনত্ম ২৪ ঘণ্টায় ৩৯০ জন ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকাতেই ছিল ৩৭৪ জন। গত শুক্রবার পর্যনত্ম সারা দেশে নয় হাজার ৬৫৭ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়।
তার আগেরদিন বৃহস্পতিবার সকাল পর্যনত্ম ২৪ ঘণ্টায় ৫৪৭ জন ডেঙ্গু রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়। এর মধ্যে ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ৫৩৬ জন। বৃহস্পতিবার পর্যনত্ম সারা দেশে নয় হাজার ২৫৬ জন ডেঙ্গু রোগীর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
৪০ শয্যাবিশিষ্ট সেল চালু করেছে বিএসএমএমইউ: ডেঙ্গু জ্বরে আক্রানত্মদের চিকিৎসা সেবা দিতে ৪০ শয্যাবিশিষ্ট ডেঙ্গু সেল চালু করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ)। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেবিন বস্নকের নিচতলায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রানত্মদের চিকিৎসাসেবায় এ সেল চালু করা হয়।
ডেঙ্গু চিকিৎসাসেবা সেল উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান। এ সময় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, মেডিসিন অনুষদের ডিন ও মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. জিলন মিঞা সরকার, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল হান্নান, পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে মাহাবুবুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ৪০ শয্যার মধ্যে ২৫টি শয্যা কেবিন বস্নকে এবং অন্য শয্যাগুলো ডি বস্নকের মেডিসিন বিভাগে ডেঙ্গুতে আক্রানত্ম রোগীদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে। ডেঙ্গু চিকিৎসাসেবা সেলে গতকাল শনিবার সাতজন রোগী ভর্তি হয়েছেন।