এফএনএস: কুড়িগ্রামে বাসের ধাক্কায় একই পরিবারের তিন সদস্যসহ চার জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুই জন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কুড়িগ্রাম-রংপুর সড়কের কাঁঠালবাড়ী কলেজের পাশে এ দুর্ঘটনা ঘটে। কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি (তদন্ত) রাজু সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও হাসপাতালে উপসি’ত নিহতদের স্বজনরা জানান, নিহত মোস্তফা তার পরিবারের লোকজনসহ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে লালমনিরহাট জেলার বড়বাড়ীতে তাদের আত্মীয়ের বাড়ি থেকে কুড়িগ্রামে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। তাদের অটোরিকশাটি কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী কলেজের কাছে পৌঁছালে বগুড়া থেকে কুড়িগ্রামগামী অর্পণ নামে (কুমিলৱা-জ ১১-০০১০) একটি মিনিবাস অটোরিকশাটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে চালকসহ অটোরিকশার ছয় যাত্রী গুর্বতর আহত হলে স’ানীয়রা তাদের উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস’ায় চার জন মারা যান।
নিহতরা হলেন সদর উপজেলার করিমের খামার গ্রামের মোস্তফা (৪২), তার স্ত্রী জোসনা (৩২), তাদের নানী আমেনা (৭৫) ও অটোরিকশা চালক মানিককে (৩৫)। এ ঘটনায় নিহত মোস্তফা-জ্যোসনা দম্পতির একমাত্র কন্যা মেয়ে (১৫) ও অপর যাত্রী জাহেদুল (৪৫) গুর্বতর আহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার পর আধা ঘণ্টা ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও পরে পুলিশ এসে পরিসি’তি নিয়ন্ত্রণে আনে। কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি (তদন্ত) রাজু সরকার জানান, দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও অটোরিকশাটিকে থানায় নেওয়া হয়েছে। মিনিবাসের চালক পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।